Jago News logo
ঢাকা, সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৬ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ

দুই ঘণ্টা ফেরিতে আটকে ছিলেন নৌ মন্ত্রী


মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:১১ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৫:২৬ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার
দুই ঘণ্টা ফেরিতে আটকে ছিলেন নৌ মন্ত্রী ফাইল ছবি

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ আওয়ামী লীগ নেতারা কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া নৌরুটে লৌহজং হাজরা চ্যানেলে দুই ঘণ্টা আটকা পড়েছিলেন।

আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কমিটির সদস্যরা মঙ্গলবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজার জিয়ারতের জন্য ঢাকা থেকে নৌপথে যাওয়ার সময় তাদের বহনকারী ভাষাসৈনিক ডা. গোলাম মাওলা ফেরিটি   ডুবোচরে আটকা পড়ে। এসময় নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ মন্ত্রিপরিষদ সদস্যরা, আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন প্রেসিডিয়াম সদস্য, যুবলীগ, ও ছাত্রলীগের নেতারা আটকে পড়া ফেরিতে অবস্থান করছিলেন। আটকে পড়াদের স্পিডবোটযোগে কাওড়াকান্দি ঘাটে পৌঁছে দেয়া হয়।

স্থানীয়রা জানান, সকাল নয়টায় ফেরিটি শিমুলিয়া ঘাট থেকে কাওড়াকান্দি ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। মাঝ নদী পাড়ি দিয়ে লৌহজং-হাজরা চ্যানেলে প্রবেশ করার পরই ফেরিটি ডুবোচরে আটকে যায়। প্রায় দুই ঘণ্টা আটকে থাকার পর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া ঘাট থেকে স্পিডবোট এনে বিকল্প পথে নেতাকর্মীদের কাওড়াকান্দি ঘাটে নিয়ে যায়। দুপুর ১২টার দিকে কাওড়াকান্দি ঘাট থেকে মাইক্রোবাস ও বিভিন্ন যানবাহনে চড়ে তারা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

এ ব্যাপারে নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, ফেরি চলাচলের জন্য নদীতে পানির গভীরতার প্রয়োজন বেশি। কিন্তু এই চ্যানেলের মুখে সেই পরিমাণ পানি নেই তাই ফেরিটি আটকে গেছে। তিনটি উদ্ধারকারী জাহাজ ফেরিটিকে ডুবোচর থেকে টেনে নামানোর কাজ করছে। নেতাদের বিকল্পভাবে স্পিডবোটযোগে কাওড়াকান্দি ঘাটে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। সেখান থেকে তারা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

এ কে এম নাসিরুল হক/আরএআর/আরআইপি

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Comfy-For-Desk