Jago News logo
ঢাকা, সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৬ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ

তাড়াশ থানার ওসি প্রত্যাহার


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:২২ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৫:৫১ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার
তাড়াশ থানার ওসি প্রত্যাহার

সিরাজগঞ্জে তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হকের উপর হামলা ও দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে তাড়াশ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এটিএম আমিনুর ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, এটা প্রত্যাহার নয়। তাকে বদলি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে থেকে তাকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন। প্রত্যাহারের পর ওসি আমিনুল ইসলামকে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশ সুপার।

তাড়াশ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সদর চেয়ারম্যান বাবুল শেখ জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য মিলন এমপির নির্দেশে ওসি আমিনুল ইসলাম উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থকদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছিল। গত ৩০ অক্টোবর এমপির নির্দেশে উপজেলা চেয়ারম্যানের উপর হামলা চালানো হলেও ওসি আমিনুল ইসলাম নিরব ভূমিকা পালন করেছে। মূলত এ কারণেই তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তবে প্রত্যাহারের বিষয়টি অস্বীকার করে পুলিশ সুপার মো. মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ জানান, এটা প্রত্যাহার নয় পুলিশের নিয়মিত রুটিন ওয়ার্ক। তাকে বদলি করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

গত ৩০ অক্টোবর সকালে তাড়াশে মাসিক আইন শৃঙ্খলা সমন্বয় সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হকের সমর্থক সদর ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল সেখ ও বারুহাস ইউপি চেয়ারম্যান মোক্তার হোসেন এমপি এবং ওসিকে জড়িয়ে নানা ধরনের বিরূপ মন্তব্য করায় হট্টগোল শুরু হলে মিটিং স্থগিত করা হয়।   

এরপর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক নিজ কার্যালয়ে ইউপি চেয়ারম্যানদের নিয়ে বৈঠকে বসেন। বৈঠক চলাকালে একদল সন্ত্রাসী উপজেলা চেয়ারম্যানের রুমে হামলা চালিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হককে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় (০১ নভেম্বর) মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চেয়ারম্যানের ভাগ্নে ও তাড়াশ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবুল শেখ বাদী হয়ে সংসদ সদস্য গাজী ম.ম আমজাদ হোসেন মিলন, তার দুই ছেলে জার্জিয়াস মিলন ও জাকির হোসেন জুয়েল, তার ব্যক্তিগত সহকারী বড় মেয়ে জামাতা রবিউল ইসলাম, ছোট মেয়ে জামাতা তাড়াশ উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি গোলাম রব্বানী সূর্য্য, ভাইস চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন বিদ্যুৎ ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবেক লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক পিয়াসসহ ১৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ ওইদিন রাতে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক পিয়াসকে আটক করে।

ইউসুফ দেওয়ান রাজু/এএম/এমএস

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Comfy-For-Desk