Jago News logo
ঢাকা, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ

চাই দুর্নীতিমুক্ত কার্যকর জেলা পরিষদ


সম্পাদকীয়

প্রকাশিত: ১১:৪৯ এএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার
চাই দুর্নীতিমুক্ত কার্যকর জেলা পরিষদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নবনির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আপনাদের লক্ষ্য হবে মানুষের সেবা করা। তাদেরকে সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দিয়ে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ পড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় শাপলায় ৫৯ জন চেয়ারম্যানকে শপথ বাক্য পাঠ করান তিনি। এসময় জেলার সার্বিক উন্নয়নে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব নিয়ে সততার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা অত্যন্ত গুরুত্ববহ। প্রশাসনকে জনগণের দোরগড়ায় পৌঁছে দেয়ার দাবি দীর্ঘদিনের। সে অনুযায়ী আওয়ামী লীগ সরকার জেলা পরিষদের পুনর্জীবন ঘটান। গত ২৮ ডিসেম্বর প্রথমবারের মত জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।এই নির্বাচন জেলা পরিষদকে আরও শক্তিশালী করবে।  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেমনটি বলেছেন- ‘ক্ষমতা যতো বেশি বিকেন্দ্রীকরণ করা যাবে, জনগণ ততো বেশি সেবা পাবে। আপনাদের নিজ নিজ জেলায় উন্নয়ন কাজ যথাযথভাবে হচ্ছে কিনা- সেদিকে খেয়াল রাখবেন। কী কী করলে আরও উন্নয়ন করা যায় সেদিকেও লক্ষ্য রাখবেন। আপনাদের অনেক কাজ। অনেক বাধা চড়াই উৎরাই পার হয়ে উন্নয়নের মহাসোপানে পা রেখেছে বাংলাদেশ। এটা যেন আর পেছনের দিকে না যায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,  বঙ্গবন্ধু ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ করে তৃণমূল পর্যায়ে ক্ষমতা চেয়েছিলেন মানুষের সেবার জন্য। ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচন এবার প্রথম হলো ইলেকটোরাল ভোটের মাধ্যমে। আগে সিলেকশনের মাধ্যমে চেয়ারম্যানদের বসানো হতো। আমাদের লক্ষ্য দেশের মানুষের সেবা দেয়া। স্বাধীনতার পর দেশের মানুষ ছিল সাড়ে সাত কোটি কিন্তু এখন সেটা বেড়ে ১৬ কোটি হয়েছে। ক্ষমতা যতো বিকেন্দ্রীকরণ করতে পারবো জনসেবা ততো সহজ হবে।’

স্থানীয় সরকারে জনসাধারণ সরাসরি জনপ্রতিনিধিদের সাথে খুব সহজেই যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে। সেজন্য তাদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরা সহজ হয়। কিন্তু সেই সুযোগটি জনপ্রতিনিধিরা সাধারণ মানুষকে যেন দেন সেটি নিশ্চিত করতে হবে। সুষমও উন্নয়নও অত্যন্ত জরুরি। দলীয়ভাবে নির্বাচন না হলেও রাজনৈতিক দলের স্থানীয় নেতারাই অধিকাংশ ক্ষেত্রে জেলা পরিষদে নির্বাচিত হয়ে এসেছেন। তাই জেলা পরিষদে যেন দলীয় প্রভাব না পড়ে সেটি নিশ্চিত করতে হবে। দুর্নীতিমুক্ত জেলা পরিষদ সকল দাবির কেন্দ্রবিন্দুতে। উন্নয়ন অগ্রগতির চাকা বাধাগ্রস্ত হবে যদি স্থানীয় সরকারের এক বা একাধিক স্তরে ঠিকমত কাজকর্ম না হয়। এ জন্য জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার-স্থানীয় সরকারের কাজের সঙ্গে সমন্বয় থাকতে হবে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় স্থানীয় সরকার শক্তিশালী হয়ে উঠুক এবং জনসাধারণ এ থেকে তাদের কাঙ্খিত সেবা পাবে- এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

এইচআর/আরআইপি

আপনার মন্তব্য লিখুন...