ক্ষতিগ্রস্ত ছাদ বাগান মালিককে গাছ উপহার

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:২৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৯

সাভারের একটি বাড়ির ছাদে কুপিয়ে গাছ কেটে ফেলেন খালেদা আক্তার লাকি নামের এক নারী। গাছের মালিক সুমাইয়া হাবিব তাকে থামাতে গিয়েও ব্যর্থ হন। সেই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। বুধবার সকালে খালেদাকে আটক করে স্থানীয় থানা পুলিশ।

অপরদিকে ছাদ বাগানের গাছ হারানো নারীকে উপহার দেওয়া হয়েছে গাছ। বুধবার দুপুরে সুমাইয়া হাবিবের বাসায় গিয়ে গাছগুলো উপহার দেয় পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রিন সেভার্স।

স্থানীয়রা জানায়, ছাদ বাগানকে কেন্দ্র করে ওই অ্যাপার্টমেন্টে দুই প্রতিবেশীর মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এ ঘটনার জেরে ছাদের গাছ কেটে ফেলেন খালেদা। ওই নারীর স্বামীর নাম অ্যাডভোকেট সেলিম আলদীন। ছেলের নাম আব্দুল্লাহ আলদীন লিখন।

tree

গতকাল খালেদার গাছ কাটার ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে নিন্দার ঝড় ওঠে। ভিডিওতে দেখা যায়, এক নারী দা হাতে অন্য একজনের তৈরি করা ছাদ বাগানের সব গাছ কেটে সাফ করে দিচ্ছেন! গাছের মালিকের আকুতি-কান্না তাকে থামাতে পারছে না। সঙ্গে আছে তার ছেলে। ছাদে এলাকার কিছু ছেলেও দাঁড়িয়ে আছে! সুমাইয়া হাবিব নামের ভুক্তভোগী ওই নারী ফেসবুকে নিজের গাছের ওপর এমন বর্বর আচরণের ভিডিও আর বিবরণ পোস্ট করেন। একপর্যায়ে তাকে দা দিয়ে আঘাত করতে আসেন ওই নারী।

সুমাইয়া হাবিব বলেন, ‘আমরা গাছ লাগাইছি দেখে তাদের গা জ্বলত। তাদের ছেলে মাস্তানি করে। সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ঘুরে বেড়ায়। সেই ছেলে আমাদের গাছ ভেঙে ফেলত। একদিন তাদের না করেছিলাম। এ জন্যই হয়তো শত্রুতা করল।’

tree

অভিযুক্ত লাকি বলেন, ‘আমি অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছি এর জন্য পুলিশ আমাকে আটক করেছে। গাছের প্রতি আমার কোনো ক্ষোভ নাই। হাবিব সাহেব আমাকে বকাবকি করেছেন, আমাকে ছাদ থেকে ফেলে দেবেন, আমাকে মারবেন। আমাকে বারবার মারতে আসছে, আপনারা ভিডিওতে দেখেননি?’ গাছগুলো কাটার পর অনুতপ্ত কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গাছ কেটে আমি ঠিক কাজ করিনি, আমি অনুতপ্ত।’

সাভার মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম সাইফ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ছাদে টবে লাগানো গাছের মালিকের দায়ের করা মামলায় ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এসইউ/এমএস