দেশজুড়ে

প্রেমিককে জিম্মি করে কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৫

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে প্রেমিক যুগলকে জিম্মি করে এক কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ধর্ষণের ভিডিও চিত্রও ধারণ করে বখাটেরা। পরে পুলিশের হেল্পলাইন ৯৯৯ এর সহায়তায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার এবং অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় ৭ জনকে আসামি করে শনিবার (২০ এপ্রিল) মামলা দায়ের করেছেন ওই কলেজছাত্রী।

গ্রেফতাররা হলেন- সিংগাইর উপজেলার ইসলামনগর গ্রামের দ্বীন ইসলামের ছেলে ফজর আলী (১৮), আব্দুল মান্নান খানের ছেলে শিপন খান (১৮), মো. চুন্নু খানের ছেল দিপু (১৯), আবুল হোসেনের ছেলে নাজমুল (২১) ও রবিউল দেওয়ানের ছেলে সুজন (২৮)। বাকি দুই পলাতক আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কলেজ পড়ুয়া ওই ছাত্রীর বছর খানেক আগে এক প্রবাসীর সাথে বিয়ে হয়। তবে ওই শিক্ষার্থীর সাথে পার্শ্ববর্তী হরিরামপুর উপজেলার এক ছাত্রের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সূত্র ধরে শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) রাতে ওই ছাত্রীর সাথে সিংগাইরে দেখা করতে আসেন প্রেমিক। এ সময় বখাটেরা তাদের দেখে ফেলে।

মেয়েটি বাড়িতে চলে গেলেও প্রেমিককে আটক করে বখাটেরা। পরে প্রেমিকের মোবাইল ফোনে ওই ছাত্রীকে ডেকে আনা হয়। পরে প্রেমিককে জিম্মি করে কলেজছাত্রীকে গ্রামের এক বাড়ির গোসল খানায় নিয়ে ধর্ষণ করে ৭ যুবক। একই সঙ্গে গণধর্ষণের দৃশ্যও মোবাইল ফোনে ধারণ করে বখাটেরা।

এক পর্যায়ে কলেজ ছাত্র মোবাইলে তার ভাইকে বিষয়টি জানালে পুলিশের ৯৯৯ হেল্পলাইনের সহায়তা চান তিনি। খবর পেয়ে সিংগাইর থানা পুলিশ ভোরে প্রেমিক যুগলকে উদ্ধার করে। একই সাথে অভিযান চালিয়ে ৫ বখাটেকে গ্রেফতার করে। তবে দুইজন পালিয়ে যায়।

সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ইমাম হোসেন জানান, গণধর্ষণের এ ঘটনায় কলেজছাত্রী বাদী হয়ে ৭ জনের নামে মামলা দায়ের করেছেন।এর মধ্যে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুইজনকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও জানান, জেলা সদর হাসপাতালে ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া গ্রেফতারদের রোববার (২১ এপ্রিল) আদালতে তোলা হবে।

বি.এম খোরশেদ/আরএস