খেলাধুলা

আইরিশদের হারিয়ে ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে প্রথম জয়

২০০ বিশ্বকাপে অসাধারণ পারফরম্যান্স প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের। তারওপর, ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ। সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে তুখোড় একটি দল নিয়ে বিশ্বকাপে লড়াই করতে নেমেছে টাইগাররা। প্রত্যাশার পারদ একটু বেশিই হওয়ার কথা।

কিন্তু মিরপুরে উদ্বোধনী ম্যাচে ভারতের কাছে ৮৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হার সেই আশায় পানি ঢেলে দেয়ার কাজ করে। টস জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠানোর মাশুল গুণতে হয় সাকিব আল হাসানের দলকে। ৩৭১ রানের বিশাল লক্ষ্য বাংলাদেশের সামনে দাঁড় করিয়ে দেয় মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। ১৭৫ রানের বিশাল ইনিংস খেলেন বিরেন্দর শেবাগ।

জবাব দিতে নেমে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরাও খারাপ খেলেননি। ৯ উইকেট হারিয়ে ২৮৩ রান করেছিল টাইগাররা। তামিম করেছিলেন সর্বোচ্চ ৭০ রান। হার ৮৭ রানের ব্যবধানে।

ভারতের কাছে হারের পর ভাঙা মনোবল নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ মুখোমুখি হয় আয়ারল্যান্ডের। এবার মিরপুরে টস জিতে আর ফিল্ডিং নেয়ার সাহস করেননি সাকিব। ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে আইরিশ বোলারদের সাঁড়াসি আক্রমণে দিশেহারা হয়ে ওঠে বাংলাদেশের ব্যটাসম্যানরা। অলআউট হতে হয় মাত্র ২০৫ রানে। তখনও চার বল বাকি ছিল।

ওপেনার তামিম ইকবালই কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছিলেন। ৪৩ বলে তিনি খেলেন ৪৪ রানের ইনিংস। মুশফিকুর রহীম করেন ৩৬ রান। রাকিবুল হাসান খেলেন ৩৮ রানের ইনিংস। শেষ দিকে নাঈম ইসলাম করেন ২৯ রান।

জবাব দিতে নেমে আইরিশরা অবশ্য শফিউল ইসলামের বোলিং তোপের মুখে পড়ে। একাই এই পেসার নেন ৪ উইকেট। আইরিশ ব্যাটসম্যানদের দাঁড়াতেই দেননি তিনি। শফিউল ছাড়াও ২টি করে উইকেট নেন সাকিব আল হাসান এবং মোহাম্মদ আশরাফুল। ১টি করে নেন আবদুর রাজ্জাক এবং নাঈম ইসলাম।

বাংলাদেশের বোলারদের সাঁড়াসি আক্রমণে ৪৫ ওভারে মাত্র ১৭৮ রানেই অলআউট হয়ে যায় আয়ারল্যান্ড। ২৭ রানের অসাধারণ এক জয় পেয়ে যায় টিম বাংলাদেশ। ঘরের মাটিতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে এটাই ছিল বাংলাদেশের প্রথম জয়। শফিউল ইসলাম ৪ উইকেট নিলেও ৪৪ রান করার কারণে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন তামিম ইকবাল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ: ২০৫/১০, ৪৯.২ ওভার (তামিম ৪৪, রকিবুল ৩৮, মুশফিক ৩৬, নাঈম ২৯, ইমরুল ১২, রাজ্জাক ১১, জুনায়েদ ৩, শফিউল ২, রুবেল ২, আশরাফুল ১; বোথা ৩২/৩, ডকরেল ২৩/২, জনস্টন ৪০/২)।

আয়ারল্যান্ড: ১৭৮/১০, ৪৫ ওভার (নেইল ও’ব্রায়েন ৩৮, কেভিন ও’ব্রায়েন ৩৭, বোথা ২২, পোর্টারফিল্ড ২০; শফিউল ২১/৪, সাকিব ২৮/২, আশরাফুল ৪২/২, রাজ্জাক ৩০/১, নাঈম ৩৬/১)।

ফল: বাংলাদেশ ২৭ রানে জয়ী।ম্যান অব দ্য ম্যাচ: তামিম ইকবাল।

আইএইচএস/এমএস