রাজনীতি

ঈদের পরে নতুন নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরুর দাবি খসরুর

ঈদের আগে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং ঈদের পরে নতুন নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরুর দাবি জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ দাবি জানান।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম নামের একটি সংগঠন এ আয়োজন করে।

খসরু বলেন, ‘অন্যায়ভাবে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে সরকার।’ নেত্রীকে এই ঈদের আগে মুক্তির দাবি জানান তিনি। ‘এই নির্বাচন বাতিল ঘোষণা করে ঈদের পরে পুনরায় নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করুন। দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করুন। দেশের জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দিন।’

বাংলাদেশের রাজনীতিবিদরা ইতিহাসবিদ হয়ে গেছে মন্তব্য করে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, ‘অনেকেই ক্ষমতায় থেকে ইতিহাস রচনা করতে চাচ্ছে। কিন্তু ক্ষমতায় থেকে ইতিহাস রচনা করা যায় না। প্রোপাগান্ডা করে ইতিহাস রচনা করা যায় না। কিন্তু রাজনীতিবিদরা যখন ইতিহাসবিদ হয় তখন সেই ইতিহাস আর ইতিহাস থাকে না। বর্তমানে কিছু রাজনীতিবিদ জিয়াউর রহমানের ইতিহাস বিকৃত করতে চাচ্ছেন এটাকে আমি প্রোপাগান্ডা বলবো এটাকে ইতিহাস বলা যেতে পারে না। এ প্রোপাগান্ডা কোনো দিনও সফল হবে না।’

খসরু বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা ঘোষণা দেয়া, পরিবার-পরিজন রেখে যুদ্ধ করা, জনগণ, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীদের একত্রিত করে যুদ্ধ করা এবং ‘৭৫ এর পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের এই অন্ধকার থেকে আলোতে আনার ইতিহাস জিয়াউর রহমানের। এই ইতিহাস কখনো মুছে যাওয়ার নয়।’

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলামের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আজম খান, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমতুল্লাহ, শাহ মো. নেসারুল হক, কৃষক দলের মোজাম্মেল হক মিন্টু, আলহাজ খলিলুর রহমান ইব্রাহিম, মৎস্যজীবী দলের ইসমাইল হোসেন সিরাজী বক্তব্য দেন।

কেএইচ/এমআরএম/জেআইএম