জাতীয়

দড়ি বেঁধে মালিবাগে সড়ক অবরোধ, ভোগান্তির শেষ নেই

রিকশা চলাচলের দাবিতে মালিবাগ রেলগেট এলাকায় কোমরে দড়ি বেঁধে এবং রাস্তায় স্ল্যাব ও লোহার পাইপ রেখে সড়ক অবরোধ করেছেন রিকশাচালকরা। এর ফলে গণপরিবহন, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেলসহ সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, মালিবাগ মোড়ের এক পাশে পুলিশ সদস্য নির্বাক দাঁড়িয়ে আছেন। তাদের সামনে রাস্তার এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে দড়ি বেঁধে যান চলাচল বন্ধ করে রেখেছেন রিকশাচালকরা। রেল লাইনের এক পাশে ঢালাই করা স্ল্যাব এবং অন্য পাশে লোহার পাইপ ফেলে রেখেছেন। এছাড়া রাস্তার বিভিন্ন স্থানে ইট ফেলে রাখা হয়েছে।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একজন মোটরসাইকেল নিয়ে দড়ি অতিক্রম করে রাস্তা পার হতে চাইলে রিকশাচালকরা তার ওপর চড়াও হন। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন। এর কিছুক্ষণ পর একই স্থান দিয়ে পুলিশের একটি পিকআপভ্যান যেতে চাইলে সেখানেও বাধা দেন রিকশাচালকরা। তবে কিছুক্ষণ পর সেটি ছেড়ে দেওয়া হয়।

স্ল্যাব, লোহার পাইপ ও দড়ি বেঁধে রাস্তা অবরোধের বিষয়ে জানতে চাইলে খায়রুল নামের একজন বলেন, ‘আমাদের রুটি-রুজির বিষয়। রিকশা চলাচল বন্ধ করে দিয়ে আমাদের পেটে লাথি মারা হয়েছে। আমাদের দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত এভাবে রাস্তা বন্ধ থাকবে।’

এদিকে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। নিরুপায় হয়ে পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যাচ্ছেন তারা। করাইলে একটি হাসপাতালে যাওয়ার জন্য খিলগাঁও থেকে বের হয়েছেন ফাতেমা। মালিবাগ মোড়ে তার রিকশা আটকে দেওয়া হয়। নিরুপায় হয়ে অসুস্থ ফাতেমাকে রেলগেট মোড়ের একটি দোকানের সিঁড়িতে বসে থাকতে দেখা যায়।

কাছে গিয়ে কথা বললে ফাতেমা বলেন, ডাক্তার দেখানোর জন্য বাসা থেকে বের হয়েছিলাম। কিন্তু এখানে আসতেই রিকশা আটকে দেওয়া হলো। আমি অসুস্থ মানুষ। হাঁটতে পারছি না। রিকশায় করে বাসায় ফিরে যাব তাও যেতে দেয়নি। তাই নিরুপায় হয়ে এখানে বসে আছি। আমার স্বামীকে ফোন করছি, সে এসে আমাকে নিয়ে যাবে।

রামপুরা থেকে মৌচাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কোচিং করতে আসা সরোয়ার বলেন, বাসা থেকে সকালে বের হয়েই দেখি রাস্তা বন্ধ করে রাখা হয়েছে। বাধ্য হয়ে হেঁটে কোচিংয়ে আসি। এখন আবার হেঁটে বাসায় যাচ্ছি।

রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ তিনটি সড়ক থেকে রিকশা তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে রাজধানীর মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডাসহ বেশ কয়েকটি এলাকার সড়কে আন্দোলনে নেমেছেন রিকশাচালকরা। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে রাজধানীর কুড়িল-রামপুরা-মালিবাগ সড়কের বিভিন্ন অংশ অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন তারা।

এমএএস/আরএস/এমকেএইচ