রাজনীতি

সন্ত্রাসী-দুর্নীতিবাজ আ.লীগের সদস্যপদ পাবে না : কাদের

দুষ্টু গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ভালো- মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চিহ্নিত সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ, স্বাধীনতাবিরোধী ও সাম্প্রদায়িক শক্তির কেউ আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না। আমরা কোয়ালিটি দেখবো। জনগণের কাছে যারা গ্রহণযোগ্য, ভালো মানুষ নয়, এসব মানুষ আওয়ামী লীগের কোনো প্রয়োজন নেই। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলের শৃঙ্খলার বিষয়টি আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। শৃঙ্খলা ছাড়া দলের গতিশীলতা বাড়বে না, দলের কর্মকাণ্ড বাধাগ্রস্থ হবে। কাজেই দলের শৃঙ্খলার ক্ষেত্রে খুবই মনোযোগী, সাবধান ও সতর্ক হতে হবে। আর এর জন্য প্রত্যেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আপনারা কর্মী সভা করবেন। দলের সদস্য করার ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে, যাকে তাকে আওয়ামী লীগের সদস্য পদ দিতে পারবো না। নির্বাচনের সময় জোয়ারে অনেকেই আওয়ামী লীগ ও নৌকার পক্ষে মিছিল করেছে। সবাইকে আমরা একোমোডেট করতে পারবে কি না সেটা ভাবতে হবে। দলকে খারাপ লোক থেকে মুক্ত রাখতে হবে। দলে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চার করতে চায়। দূষিত রক্তের কোনো প্রয়োজন নেই। এমন কেউ যাতে না আসতে পারে, সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে ও ব্যবস্থা নিতে হবে।

সরকারের বিরুদ্ধে নানা গুজব ছড়ানো হচ্ছে এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, দৃশ্যপট যতই দূর্বল হোক তলে তলে ষড়যন্ত্র বাড়ছে। সরকারকে বিপদে ফেলতে গুজবের ডালপালা বিস্তার করছে। পদ্মা সেতু নিজস্ব অর্থায়নে হচ্ছে এটা তারা সহ্য করতে পারছে না। গায়ে জ্বালা ধরছে। তাই তারা বলে লক্ষ মানুষের মাথা ও রক্তের প্রয়োজন। এই সকল অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ফেসবুকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অ্যাকটিভ হতে হবে। সর্বমুখি সাইবার অ্যাটাক হচ্ছে। এরও পাল্টা জবাব দিতে হবে। অপশক্তির অপপ্রচারের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। গত নির্বাচনে সাইবার অ্যাটাকা করতে না পারায় শন্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে। আজকের এই শান্তিপূর্ণ অবস্থা সব সময় এক থাকবে, এমন মনে করার কিছু নেই। নীরবতার মধ্যে হলি আর্টিসান ঘটবে না, এ কথা মনে করার কিছু নেই। সতর্ক থাকতে হবে। সাহস নিয়ে এগিয়ে যাবেন।

পদ্মা সেতু নিয়ে বিএনপি গুজব ছড়াচ্ছে- এমন ইঙ্গিত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ...এখন শুরু করেছে অপপ্রচার। অপপ্রচার ছাড়া এদের কোনো পুঁজি নেই। এই অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

বিএনপির ডাকে এখন জনগণ সাড়া দেয় না এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা শুধু মুখে আন্দোলনের হাকডাক দেয়। বাস্তবে কোনো আন্দোলন আজ পর্যন্ত তারা করতে পারেনি। আমরা দেখি না তাদের কতটা হিম্মত আছে। খালেদা জিয়ার জামিনের ব্যাপার আদালতের বিষয়- এমন মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে আওয়ামী লীগ জেলে বন্দি করেনি। আদালতের আদেশে দুর্নীতির মামলায় তিনি বন্দি হয়েছেন। এ কথা আমরা বার বার বলছি- এটা আইনগত ব্যাপার, আইনি লড়াই করে আপনারা তাকে বের করে আনতে পারেন।

এমএএস/এমএসএইচ/এনএফ/আরআইপি/এমকেএইচ