খেলাধুলা

বিশ্বকাপ শুধুই সাড়ে তিনশো রানের নয় : গ্যারি স্টিড

১৪ জুলাই লর্ডসে লিখা হবে নতুন ইতিহাস। যে দলই জিতুক, দীর্ঘ দিন পর বিশ্বকাপ উঠতে যাচ্ছে নতুন এক দলের হাতে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার পর কোন নতুন দেশ জিতবে এবার বিশ্বকাপ। ক্রিকেট ‘মক্কা’ লর্ডসে শেষ হাসি হাসতে পারবে কিউইরা? নাকি ঘরের মাঠে ৪০ বছর পর ফাইনাল খেলতে নেমে প্রথমবার বিশ্বসেরা হবে ইংল্যান্ড ?

সারা দুনিয়ার ক্রিকেট অনুরাগিদের মনে এখন ঘুরে ফিরে ঐ দুটি প্রশ্ন। নিউজিল্যান্ড কোচ গ্যারি স্টিডের মনে বিশ্বসেরা হবার স্বপ্ন। সময় তাকে দাঁড় করিয়েছে এক নতুন ইতিহাসের সামনে।

৪৮ ঘন্টা পর যে মাঠে বিশ্বকাপ ফাইনাল, ঠিক ২৯ বছর আগে এই লর্ডসে স্টাফ হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতার কথা বা বার মনে পড়ছে তার। তাই তো আজ দুপুরে (লন্ডন সময় দুপুর পৌনে ১টা আর বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা পৌনে ৬ টা) প্রচারমাধ্যমের সাথে কথা বলতে গিয়ে খানিক আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন স্টিড।

লর্ডসের মালিক বিশ্ববিখ্যাত ও ঐতিহ্যবাহী ‘এমসিসির’ (মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব) স্টাফ হিসেবে কাজ করার কথা অকপটে ও যেচে স্বীকার করে নিউজিল্যান্ড কোচ জানিয়ে দিলেন, ‘হ্যাঁ, ১৯৯০ সালে আমি এই মাঠের গ্রাউন্ডস্টাফ ছিলাম। সেটা ছিল ভিন্ন অনুভূতি। কাজের ধরন ছিল ভিন্ন। আমি লর্ডসের দরজা-জানালাও পরিষ্কার করেছি। এমনকি স্কোরকার্ড বিতরণ, স্কোর বক্স থেকে অন্যত্র দৌড়াদৌড়ির কাজও করতে হয়েছে। সেটা এক অন্য ধরনের অনুভূতি।’

তবে মাঠ কর্মী থেকে নিউজিল্যান্ডের কোচ হিসেবে লর্ডসের অভিষেকটা মোটেই ভাল হয়নি গ্যারি স্টিডের। এই মাঠে ২৯ জুন অস্ট্রেলিয়ার সাথে রবিন লিগের ম্যাচ ছিল নিউজিল্যান্ডের। সে খেলায় দাঁড়াতেই পারেনি নিউজিল্যান্ড। ৮৬ রানের বড় পরাজয় ছিল সঙ্গী।

ফাইনালের আগে সে ম্যাচের কথাও মনে পড়ছে তার। সে ম্যাচে দল হেরেছিল। আবহাওয়াও ছিল বেশ ঠান্ডা- এ কথা দুটি ঠিক মনে করলেন সংবাদ সম্মেলনে। তবে লর্ডসের ফাইনাল সম্পর্কে তার একটি মত দিলেন বেশ জোরে সোরেই।

গ্যারির কথা, ‘অনেকেই ভেবেছিলেন, এবারের বিশ্বকাপ হবে সাড়ে তিনশো রানের। মনে হয়েছিল সাড়ে তিনশোর নিচে রান করে বিশ্বকাপে ম্যাচ জেতা যাবেনা। কিন্তু বাস্তব তা বলে না। আড়াইশোর নিচে রান করেও বড় ম্যাচ জয়ের রেকর্ড আছে একাধিক দলের। ভারতের বিপক্ষে আমরা দেখিয়ে দিয়েছি আড়াইশোর নিচে রান করেও জেতা যায়।’

বলার অপেক্ষা রাখেনা, ভারতের সাথে তার দল জিতেছে ২৩৯ রানের মাঝারির চেয়েও ছোট পুঁজি নিয়ে। সে কথাই যেন স্মরণ করিয়ে দিলেন নিউজিল্যান্ড কোচ।

পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, এই লর্ডসে গত ২৯ জুন অস্ট্রেলিয়াও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আড়াইশোর কম ২৪৩ রানের পুঁজি নিয়ে জিতেছিল। তাই ফাইনালে সাড়ে তিনশো রান না করলে জেতা যাবে না- কিউই কোচ তা মনে করেন না। বা ভাবতে চান না। তাই তিনি কোন নির্দিষ্ট টার্গেট বেঁধে দিতে চান না।

ভারতের সাথে সেমির যুদ্ধর কথা টেনে গ্যারি বলেন, ‘প্রথমে মনে হচ্ছিল আমরা ৩০০ + রানের জন্য খেলবো। পরে দেখলাম- বুঝলাম আড়াইশো রানও কম হবেনা।’

বিশ্বকাপ ফাইনালকে সামনে রেখে তার চিন্তা-ভাবনা ও লক্ষ্য-পরিকল্পনার কথা বলতে বলা হলে ব্ল্যাক ক্যাপস কোচ জানালেন, ‘আমরা দল হিসেবে এবারের বিশ্বকাপে তিনটি ‘গোল ’ সেট করেছিলাম। যার দুটি পূর্ণ হয়েছে। আর একটি বাকি আছে। সাফল্যের মঞ্চে উঠতে আর একটি মাত্র সিড়ি দূরে আছি আমরা।’

এআরবি/এমএমআর/পিআর