জাতীয়

গ্রেনেড হামলার নেপথ্যে যারা তাদেরও বিচার করতে হবে

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেছেন, ‘২০০৪ সালে আওয়ামী লীগের সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় সরাসরি জড়িতদের যেমন বিচার করতে হবে; একইভাবে এ জঘন্য হামলার নেপথ্যে যারা রয়েছে সেই ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রকারীদেরও বিচার করতে হবে।’

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে বুধবার (২১ আগস্ট) সকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নির্মিত বেদীতে ২১ আগস্ট নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর এ সব কথা বলেন তিনি।

শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ, সহকারী প্রক্টর ও সহযোগী ডা. মো. আবু তাহের, অতিরিক্ত পরিচালক ডা. নাজমুল করিম মানিক, সহকারী পরিচালক ডা. পবিত্র কুমার দেবনাথ, ডা. বেলাল এইচ সরকার, ড. আশিকুর রহমান বিপ্লব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পুষ্প অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশে বিএসএমএমইউ উপাচার্য বলেন, ‘যে চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করেছিল সেই একই গোষ্ঠী ও তাদের অনুসারীরা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনাসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের হত্যার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালায়। সেদিন অনেকেই জীবন দিয়ে, কেউ আহত হয়ে, দেহরক্ষীরা মানবঢাল তৈরি করে আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রক্ষা করেছিলেন। আজকের দিনে আমাদের দাবি ও শপথ হলো ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় সরাসরি জড়িতদের যেমন বিচার করতে হবে, একইভাবে এ জঘন্য হামলার নেপথ্যে যারা রয়েছে সেই ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রকারীদেরও বিচার করে রায়ও কার্যকর করতে হবে।’

এমইউ/এনডিএস/এমএস