আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ শারদ পাওয়ার

ভারতের এনসিপি দলের প্রধান শারদ পাওয়ার বলেছেন কাশ্মীর ইস্যুতে মিথ্যা ছড়িয়ে রাজনৈতিক সুবিধা অর্জন করাই ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের উদ্দেশ্য। শনিবার মহারাষ্ট্রের মুম্বাইতে এনসিপি কার্যালয়ে সংখ্যালঘুদের নিয়ে আয়োজিত এক সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি কাশ্মীর থেকে সেরাজ্যের বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সুবিধা সম্বলিত ৩৭০ ধারা তুলে দেয়া প্রসঙ্গে নরেন্দ্র মোদি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘৩৭০ ধারা তৈরিই হয়েছিল কাশ্মীরকে বিশেষ কিছু মর্যাদা দেয়ার জন্য। ওই ধারা বিলোপ করে সরকার বুঝিয়ে দিল, মোদি সরকার সংখ্যালঘুবিরোধী। এতে উপত্যকায় সহিংস ঘটনা বাড়বে।’

ভারতে গণপিটুনির ঘটনার কথা উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে শারদ পাওয়ার বলেন, জাতীয়তাবাদের নামে বিশেষ এক সম্প্রদায়কে টার্গেট করা হচ্ছে। আমি ভারতীয় তার মানে এটা নয় যে আমাকে নিজেকে তার প্রমাণ দিতে হবে। নিজেদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনের জন্য শাসকদল এসব করছে।

প্রতিবেশি পাকিস্তান সম্পর্কে কেন্দ্রীয় সরকার ও শাসকদলের বিপরীত অবস্থান নিয়ে পাকিস্তানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে শারদ পাওয়ার বলেন, ‘আমি পাকিস্তানে গিয়েছি। দেখেছি ওখানে মানুষ কতটা অতিথি বৎসল! পাকিস্তানের মানুষ অবিচারের মুখোমুখি হচ্ছে ও তারা অসুখী বলে যা প্রচার করা হচ্ছে তা ঠিক নয়। রাজনৈতিক স্বার্থে সরকার পাকিস্তান সম্পর্কে মিথ্যা কথা রটাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ভারতের কিছু লোকের বক্তব্য হল, পাকিস্তানে সেখানকার লোকদের সঙ্গে অবিচার করা হচ্ছে। সেখানকার লোকজন ইমরান খান সরকারের থেকে দুঃখী। কিন্তু এটা সত্যি নয়। কিন্তু এ ধরনের বিবৃতি পাকিস্তানের বাস্তব পরিস্থিতি না বুঝেই কেবলমাত্র রাজনৈতিক লাভের জন্য দেয়া হচ্ছে। ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের উদ্দেশ্য হল মিথ্যা ছড়িয়ে কাশ্মীর ইস্যুতে রাজনৈতিক সুবিধা অর্জন করা।’

পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ ভারতের সাথে যুদ্ধ চায় না। আমরা ভারতীয় ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানে নিয়ে গিয়েছিলাম (যখন তিনি ভারতে ক্রিকেট পরিচালনা বোর্ডের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন)। সেখানে দলটি প্রচুর ভালোবাসা পেয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে আজ আমাদের দেশে এক অন্যরকম পরিবেশ তৈরি হয়েছে বলেও শারদ পাওয়ার মন্তব্য করেন। পার্সট্যুডে।

এসআইএস/জেআইএম