খেলাধুলা

বিপিএল নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে সব সিদ্ধান্ত হলো

এবারের বিপিএলটা হবে একটু অন্যরকম। আগের মতো ফ্রাঞ্চাইজি থাকছে না। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে টুর্নামেন্টটি করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিসিবির উদ্যোগ, ব্যবস্থাপনায় হবে এবারের আসর।

অন্য আদলের এই আসর নিয়েই আজ স্পন্সর পার্টনারদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল। সেখানে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেগুলো দেখে নেয়া যাক এক নজরে...

* প্লেয়ার্স ড্রাফট : ১৫ নভেম্বরের মধ্যে প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠিত হবে। আগে এটা হওয়ার কথা ছিল ২২ অক্টোবর।

* খেলোয়াড় নিবন্ধন : বিদেশি খেলোয়াড়সহ মোট ৩৯৭ জনের নিবন্ধন হয়েছে। এর মধ্যে তিনশোর বেশি বিদেশি খেলোয়াড়।

* বিদেশি কোচ : এ বছর সব দলের হেড কোচ থাকবে বিদেশি। দেশি কোচ যারা থাকবেন, তারা মূল দায়িত্বে নন। থাকবেন সহকারি হিসেবে।এমনকি এবার ফিজিও ট্রেনাররাও সবাই থাকবেন বিদেশি।

* লেগস্পিনার : লেগস্পিনারদের জন্য বাংলাদেশ দলে হাহাকার অনেক দিনের। সেই অভাব ঘুচাতে এবার নতুন এক উদ্যোগ নিয়েছে বিসিবি। বিপিএলের প্রতি দলে একজন করে লেগস্পিনার খেলানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

* ফাস্টবোলার : প্রতি দলে এবার একজন করে বিদেশি ফাস্টবোলার রাখতেই হবে এবং তাদের বলের গতি থাকবে ঘন্টায় ১৪০ কিলোমিটারের বেশি।

* বিগব্যাশের আদলে টুর্নামেন্ট : আইপিল নয়, এবারের টুর্নামেন্ট হবে অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশের আদলে।

* স্পন্সর পার্টনার : স্পন্সর পার্টনার থাকবে। জাতীয় দলের যেমন থাকে, ঠিক তেমনই।

এছাড়া দল গোছানো থেকে শুরু করে খেলোয়াড় সংগ্রহ, সবই করে দেবে বিসিবি। এই বিষয়টি একটু চমকপ্রদ। সেটা কিভাবে? অনেকেরই হয়তো জানতে ইচ্ছে করছে।

বিসিবি আবার কিভাবে দল সাজাবে? তারও পরিষ্কার ব্যাখ্যা আছে। জানা গেছে, প্রতি দলে একজন করে টিম ডিরেক্টর থাকবেন এবং তারা বোর্ড থেকে মনোনীত হবেন। বোর্ড কর্তাদের মধ্যে যারা সাবেক ক্রিকেটার ও সংগঠক আছেন, তাদের মধ্য থেকে ৭ জনকে ৭ দলে ভাগ করে দেয়া হবে।

এআরবি/এমএমআর/এমকেএইচ