আন্তর্জাতিক

মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনা চেপে যেতে বলেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী বব হক

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী বব হকের মেয়ে রসলিন ডিলন ১৯৮০ সালে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। সেই সময় নিজের ক্যারিয়ারের ওপর প্রভাব পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় ধর্ষণের ঘটনা ফাঁস না করতে মেয়েকে নীরব থাকার নির্দেশ দিয়েছিলেন হক।

রসলিন ডলিনের ধর্ষণের এই অভিযোগ দেশটির আদালতের নথিতে দেখতে পেয়েছে অস্ট্রেলীয় দৈনিক দ্য নিউ ডেইলি। এতে ডলিন বলেছেন, বাবা বব হকের রাজনৈতিক দল লেবার পাটির এমপি বিল ল্যান্ডারইউয়ের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন তিনি। তবে অভিযুক্ত এই এমপি এখন আর বেঁচে নেই।

৬৯ বছর বয়সী ডলিন তার বাবার সম্পত্তির অস্ট্রেলীয় ৪ মিলিয়ন ডলারের মালিকানা চেয়ে আদালতে মামলা করেছেন। আদালতের অ্যাফিডেভিটে ডলিন অভিযোগ করেছেন, ল্যান্ডারইউর অফিসে কাজ করার সময় তার ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন তিনি। সেসময় লেবার দলের নেতা হওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বব হক।

আদালতের নথিতে ডলিন বলেছেন, ১৯৮৩ সালে অন্তত তিনবার যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন তিনি। তৃতীয়বার ধর্ষিত হওয়ার পর তার বাবাকে জানিয়েছিলেন এবং পুলিশের কাছে অভিযোগ দিতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু বব হক জবাবে মেয়েকে বলেছিলেন, তুমি এটা করতে পারো না। আমি এই মুহূর্তে কোনো ধরনের বিতর্কের মধ্যে জড়াতে চাই না। আমি দুঃখিত যে, লেবার পার্টির নেতা হওয়ার জন্য চেষ্টা করছি। ডলিনের বোন সুয়ে পিটারস হক দ্য নিউ ডেইলিকে বলেন, ওই অভিযোগের ব্যাপারে পরিবারের সদস্যরা জানতেন।

তবে তার পরিবারের সদস্যরা অস্ট্রেলিয়ার এই দৈনিককে মন্তব্য জানাতে রাজি হয়নি। ডলিনের বোন সুয়ে পিটারস বলেছেন, ওই সময় মানুষকে জানাতে চেয়েছিল ডলিন। আমার বিশ্বাস ছিল, সে সমর্থনমূলক সাড়া পাবে। কিন্তু আইনি প্রক্রিয়ায় যাওয়া সম্ভব হয়নি।

ইউনিয়নের সাবেক কর্মকর্তা ল্যান্ডারইউ ১৯৭৬ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত লেবার দলীয় এমপি ছিলেন। বব হকের প্রধানমন্ত্রিত্ব থাকাকালীন তার সঙ্গে অত্যন্ত নিবিড় সম্পর্ক ছিল ল্যান্ডারইউর। ১৯৮০ সালের দিকে অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতিতে বব হকের আধিপত্য ছিল। ৮০'র দশকে দেশটির সাধারণ নির্বাচনে অন্তত চারবার জয় পেয়েছিলেন তিনি।

সূত্র : বিবিসি।

এসআইএস/জেআইএম