দেশজুড়ে

‘মানুষ অসাম্প্রদায়িক না হলে সুষম বণ্টন নিশ্চিত হবে না’

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, মানুষ যদি অসাম্প্রদায়িক না হয় তাহলে সমাজে সুষম বণ্টন হবে না। আমাদেরকে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী হতে হবে।

রোববার সন্ধ্যায় সিলেট নগরের রিকাবীবাজারে কবি কাজী নজরুল অডিটোরিয়ামে তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটির (গ্রাসরুটস) ৫ম জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অসাম্প্রদায়িক দক্ষিণ এশিয়া গঠনে নারীর ভূমিকা অপরিহার্য বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, প্রত্যেক নারীকে অসাম্প্রদায়িক চিন্তা-চেতনার হতে হবে, তাহলে তাদের সন্তানরাও হবে অসাম্প্রদায়িক। কারণ অসাম্প্রদায়িক দক্ষিণ এশিয়া গঠনে নারীর ভূমিকা অপরিহার্য।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার আইনের মাধ্যমে নারীদের প্রতিষ্ঠা করার জন্য কাজ করছে। জাতীয় সংসদে ৩৫০ জনের মধ্যে ৭৫ জন নারী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই নারীদের অগ্রযাত্রায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন। তিনি বয়স্ক নারী ও গ্রামের মানুষদের নিয়ে সবসময় ভাবেন। তিনি তাদের দায়িত্ব নিয়েছেন। নারীদের জন্য কোনো প্রকল্প গ্রহণ করলে প্রধানমন্ত্রী শুধু বলেন যে, নারীদের লাভ হবে তো। আর কোনো প্রশ্ন ছাড়াই অনুমোদন দেন।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার নারীবান্ধব সরকার। বর্তমানে এদেশ নারী অগ্রগতির দিকে অনেকটা এগিয়ে। এখন দেশের নারীরা সবখানেই আছেন। তারা সকল গুরুত্বপূর্ণ আসনেই আছেন।

গ্রাসরুটসের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাহিন আক্তার সাথীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র (সিসিক) আরিফুল হক চৌধুরী, সাংসদ শামীমা শাহরিয়ার, ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার এল কৃষ্ণমূর্তি, পশ্চিমবঙ্গের বাম পরিষদের নেতা ও বিধায়ক ড. সুজন চক্রবর্তী, বিধায়ক প্রদীপ সাহা, ভুটানের জাতীয় পরিষদ সদস্য ওয়াসি ওয়াংমু প্রমুখ।

তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক হিমাংশু মিত্রের সঞ্চালনায় শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মেলন অভ্যর্থনা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর। আরও বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) নাসির উল্লাহ খান, পশ্চিমবঙ্গের প্রেসিডেন্সি কলেজের সাবেক ছাত্র নেতা সুমিত চৌধুরী, নারী নেত্রী ইন্দ্রাণী সেন শম্পা।

সম্মেলনে বক্তারা উদ্যোক্তা নারীদের জন্য ‘ওমেন ব্যাংক’ স্থাপনের দাবি করে বলেন, দেশে অনেক আইন আছে, অনেক নীতিমালা আছে কিন্তু হোম বেইজড নীতিমালা নেই। এই নীতিমালা এখন সময়ের দাবি। এটি করা হলে নারী নেতৃত্ব অনেক গতিশীল এবং নারীর কর্মের সুযোগ সৃষ্টি হবে। নারীরা এগিয়ে যাওয়ার সাহস পাবে।

এর আগে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী এম এ মান্নান। আগামী মঙ্গলবার শেষ হবে তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটির ১০ দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির। সম্মেলনে ভূটান, ভারত, নেপালসহ বিভিন্ন দেশের নারী উদ্যোক্তারা অংশ নিচ্ছেন।

এ আয়োজনে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে দেশের শীর্ষ অনলাইন গণমাধ্যম জাগোনিউজ২৪.কম, দৈনিক সমকাল ও ৭১ টেলিভিশন।

ছামির মাহমুদ/এমবিআর/পিআর