জাতীয়

বাসাবাড়ি পরিচ্ছন্ন রাখার অনুরোধ মেয়র আতিকুলের

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতি অবশ্যই একটি বাড়তি চাপ। এছাড়া মশাও বেড়ে গেছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বর্তমানে আপনারা সবাই বাসায় আছেন। এই মুহূর্তে আমি সবাইকে অনুরোধ করবো, আপনাদের বাসাবাড়ি পরিষ্কার রাখবেন। নিজের কাজ নিজে করতে কোনো অসুবিধা নেই।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) মিরপুর শেরেবাংলা নগর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সামনে থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ওয়াটার ব্রাউজার গাড়িতে ডিএনসিসির বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আতিকুল বলেন, বিভিন্ন সড়ক, প্রতিষ্ঠানের সামনে, উন্মুক্ত স্থানে ওয়াটার ব্রাউজারের সাহায্যে তরল জীবাণুনাশক স্প্রে করা অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সবাই মিলে করোনাভাইরাসকে প্রতিহত করতে হবে। ঠিক একইভাবে মশা কমাতে এলাকা ও বাসাবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। সবাইকে ঘরবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখাতে হবে। সিটি করপোরেশনের সব কাউন্সিলরকে আমরা এই কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত করেছি। সবাইকে সামাজিকভাবে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

মশক কর্মীদের ওষুধ ছিটানো কার্যক্রম নিয়ে মেয়র আতিকুল বলেন, মশক কর্মীদের সকাল ৮টা থেকে সাড়ে এগারোটা পর্যন্ত মশার ঔষধ ছিটানো নিয়ম। কিন্তু বাস্তবে অনেকে ওষুধ ছিটাচ্ছে না। বর্তমানে সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে কার্যক্রম মনিটরিং করা। আমাদের ওষুধের সমস্যা নেই। ওষুধ ছেটানো কার্যক্রম মনিটরিং করতে হবে। আমরা যদি সঠিকভাবে ওষুধ ছিটানো মনিটরিং করতে পারি তাহলে আমরা এই ডেঙ্গু মশা অনেক অংশে কমাতে পারবো।

এ কার্যক্রম পরিদর্শনে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র মো. জামাল মোস্তফা প্রমুখ।

এএস/এমএসএইচ/এমকেএইচ