দেশজুড়ে

চিকিৎসকদের নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় কলেজ শিক্ষক বরখাস্ত

বিশ্বজুড়ে মহামারি আকারে ছড়ানো করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পরিস্থিতিতে দেশের চিকিৎসকদের নিয়ে ফেসবুকে উসকানিমূলক স্ট্যাটাস দেয়ায় বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজের প্রভাষক সাহাদাত উল্লাহ কায়সারকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি কেন তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা পরবর্তী সাত কার্যদিবসের মধ্যে জানাতে নোটিশ দেয়া হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বুধবার (২৫ মার্চ) এক অফিস আদেশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত ও নোটিশ পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রভাষক সাহাদাত উল্লাহ গত ২১ মার্চ ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘করোনার ভয়ে চাকরি ছাড়ার সংবাদটা বুলগেরিয়ার। বাংলাদেশের ডাক্তার ভাইয়েরা আপনার নিজের জীবন আগে, তারপর আপনার পরিবার, ছেলে মেয়ে, স্ত্রী তারপর অন্যসব। যে দেশ আপনার পেশার মূল্যায়ন করে না সেদেশের জন্য কাজ করে কি হবে। যেখানে তিনদিনের ইউএনও ৫৫ বছরের একজন অধ্যাপকের নিয়ন্ত্রক থাকে, যে কি না ডাক্তারির ‘ড’ ও জানে না।’

বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের নজরে আসলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশে বলা হয়, দেশব্যাপী করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়, দফতর, সংস্থা বর্তমানে বিভিন্ন পর্যায়ে সমন্বিতভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। সে অবস্থায় আপনি আপনার ফেসবুক আইডি থেকে নিজ নামে অনভিপ্রেত ও উসকানিমূলক বক্তব্য ও ছবি পোস্ট করেছেন; যা সরকারের চলমান সমন্বিত কার্যক্রমের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। আপনার এমন কার্যকলাপ সরকারি ব্যবস্থাপনাবিরোধী, শৃঙ্খলা পরিপন্থি ও জনস্বার্থবিরোধী আচরণ হিসেবে সরকারি কর্মচারী বিধি অনুযায়ী অসদাচরণ হিসেবে গণ্য।

বর্ণিত অসদাচরণের জন্য আপনার বিরুদ্ধে বিভাগী কার্যক্রম গ্রহণের প্রস্তাব করা হয়েছে। আপনাকে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা ২০২৮ এর বিধি-১২ অনুযায়ী ২৫ মার্চ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। এছাড়া পৃথক আদেশে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা পরবর্তী সাত কার্যদিবসের মধ্যে জানাতে নোটিশ করা হয়েছে।

সাইফ আমীন/এএম/পিআর