আন্তর্জাতিক

ট্রুডোর বাসভবনের কাছ থেকে অস্ত্রধারী আটক

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও গভর্নর জেনারেল জুলি পায়েটের বাসভবনের কাছ থেকে এক অস্ত্রধারী সেনা সদস্যকে আটক করা হয়েছে। সশস্ত্র ওই সেনা সদস্য কেনো প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন এলাকায় প্রবেশ করেছিলেন তা এখন পর্যন্ত জানানো হয়নি। সেইসঙ্গে প্রকাশ করা হয়নি তার নাম-পরিচয়ও।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গ্রেফতার কানাডা সামরিক বাহিনীর ওই সদস্যের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ আনা হয়েছে। অটোয়ায় অবস্থিত প্রধানমন্ত্রী ও গভর্নর জেনারেলের সরকারি বাসভবনের খুব কাছাকাছি এলাকায় স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোরবেলা একটি পিক-আপ-ট্র্যাক নিয়ে ঢুকে পড়েন তিনি।

কানাডা পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, সন্দেহভাজন ওই অস্ত্রধারী ব্যক্তি গাড়িটি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনের দিকে যেতে থাকেন। একপর্যায়ে গাড়ি নষ্ট হলে তিনি পায়ে হেঁটেই প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের দিকে অগ্রসর হন। কোনো অঘটন ছাড়াই তাকে আটক করে সেখানে টহলরত পুলিশ।

দ্য রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ (আরসিএমপি) শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে, তাদের ধারণা ওই ব্যক্তি একা ছিলেন। গ্রেফতার ওই ব্যক্তি কানাডার সশস্ত্র বাহিনীর একজন সদস্য বলে নিশ্চিত হয়েছেন তারা। তাবে গ্রেফতার অস্ত্রধারীর নাম পরিচয় জানানো হয়নি।

এছাড়া সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে কয়েকটি অভিযোগ আনা হলেও ঠিক কী কী অভিযোগ আনা হয়েছে তা জানায়নি রয়্যাল পুলিশ। তবে ঘটনার সময় প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো এবং তার পরিবার ওই ভবনে ছিলেন না। ভবনটির সংস্কার কাজ চলায় তারা অন্য একটি কটেজে অবস্থান করছিলেন।

ঘটনার পর জাস্টিন ট্রুডো এক প্রেস ব্রিফিংয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং ‌‘অসাধারণ পুলিশ পরিষেবার’ জন্য আরসিএমপিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

ঘটনার সময় গভর্নর জেনারেলও তার সরকারি বাসভবনে ছিলেন না। গভর্নর জেনারেলও ওই এলাকায় থাকেন। তিনি কানাডায় রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের প্রতিনিধি। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে কানাডার নিরাপত্তা বাহিনী জাস্টিন ট্রুডোর ওপর হামলার আশঙ্কা রয়েছে বলে সতর্ক করেছিল।

এসএ