দেশজুড়ে

খুলনায় আরও ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত

খুলনা মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে নতুন করে আরও ৭৩ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে ৭১ জনই খুলনা জেলা ও মহানগরীর। বাকিরা বাগেরহাট ও সাতক্ষীরার। এছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (৪ জুলাই) রাতে খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, শনিবার খুমেকের আরটি-পিসিআর মেশিনে মোট ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে খুলনার নমুনা ছিল ১৬০টি। এদের মধ্যে মোট ৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

খুলনা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত খুলনায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৪৩৫ জন। তাদের মধ্যে ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪৪৮ জন।এদিকে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে কামরুল ইসলাম (৭০) ও খাদিজা বেগম (৫৫) নামে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ও রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে তাদের মৃত্যু হয়।

খুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সি রেজা সেকান্দার জানান, জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে শনিবার বিকেলে আড়ংঘাটার গাইকুড় এলাকার মৃত হাবিবুর ইসলামের ছেলে কামরুল ইসলামকে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার পরিবার দ্রুত লাশ নিয়ে যাওয়ায় মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা যায়নি।

তিনি আরও জানান, এর আগে শুক্রবার রাত ৯টা ১৫ মিনিটে জ্বর ও শাসকষ্ট নিয়ে সোনাডাঙ্গা থানাধীন বয়রা এলাকার জলিল হোসেনের স্ত্রী খাদিজা বেগমকে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টায় তিনি মারা যান। তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

আলমগীর হান্নান/এমএসএইচ