দেশজুড়ে

গাজীপুরে রিসোর্টে হামলা চালিয়ে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট

গাজীপুরের কালীগঞ্জে একটি রিসোর্টে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বিপুলসংখ্যক গাছের চারা ও কৃষি প্রজেক্টর ক্ষতি করা হয়। রোববার রাতে উপজেলার নারগানা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ।

Advertisement

কালীগঞ্জ উপজেলার নারগানা ইন্টারন্যাশনাল রিসোর্টের মালিক জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য আজম খান বলেন, শতাধিক দুর্বৃত্ত অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে রিসোর্টে হামলা চালায়। পালিয়ে প্রাণে বাঁচতে পারলেও দুর্বৃত্তরা রিসোর্টে আগুন লাগিয়ে আসবাবপত্র ও কয়েকটি এসি, টেলিভিশন, ফ্রিজ, দরজা ভেঙে নগদ টাকাসহ জিনিসপত্র লুটপাট করে। হামলাকারীরা নার্সারির কয়েকশ চারা গাছ ভেঙে ও কেটে ফেলে। সব মিলিয়ে রিসোর্টের কমপক্ষে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি করা হয়েছে।

তার দাবি, স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা রাজনৈতিক শত্রুতার জেরে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

রিসোর্টের ম্যানেজার সোহেল খন্দকার বলেন, ঈদের পর দিন হওয়ায় রিসোর্টের মালিক আজম খান সেখানেই অবস্থান করছিলেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে ৫০-৬০টি মোটরসাইকেলে হেলমেট পরে শতাধিক দুর্বৃত্ত রিসোর্টে হামলা চালায়। হামলাকারীদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র, হকিস্টিক, লোহার রড ও বড় হাতুড়ি ছিল। হামলাকারীরা আজম খানকে খুঁজতে থাকে। তাকে না পেয়ে রিসোর্টের দৃষ্টিনন্দন বাঁশের তৈরি ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে তারা মালিকের রুমের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। তার ঘরে থাকা ফ্রিজ, টিভি, আলমারি, খাট ও আসবাবপত্র ভেঙে ফেলে তারা। আলমারি ভেঙে নগদ ২০ লাখ টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায়। হামলাকারীরা রিসোর্টের সামনে নার্সারিতে ভাঙচুর চালিয়ে কয়েকশ গাছের চারা ভেঙে ফেলে। তারা রিসোর্টের সব কটি কক্ষ তছনছ করে। এমনকি রান্নাঘর ও বাথরুমের কমোড এবং বেসিনও তাদের হাত থেকে রক্ষা পায়নি।

Advertisement

কালীগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি একেএম মিজানুল হক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমিনুল ইসলাম/এএম/পিআর