আন্তর্জাতিক

টিকটক কেনা-বেচার ভাগও চান ট্রাম্প

চীনের জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটকের মার্কিন অপারেশন কেনাবেচার বিষয়ে আলোচনা চলছে। এর মধ্যেই প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, কোনো আমেরিকান ফার্ম যদি টিকটকের মার্কিন ইউনিট কিনে নেয় তবে এই অ্যাপসটির বিক্রয়কৃত অর্থের একটি অংশ সরকারের পাওয়া উচিত।

Advertisement

সম্প্রতি টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট জানিয়েছে যে, চীনের জনপ্রিয় এই ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপটির মার্কিন অপারেশন কেনার বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাবে তারা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, মাইক্রোসফট প্রধানের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে তিনি টিকটক বিক্রির অর্থের একটি অংশ দাবি করেছেন।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টিকটক বন্ধ করে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কোনো চুক্তি না হলে চীনের বাইটড্যান্স কোম্পানির এই অ্যাপটি বন্ধ করে দেওয়া হবে।

Advertisement

বর্তমানে বিশ্বে টিকটক ব্যবহারকারী সংখ্যা ৫০ কোটির বেশি। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রেই রয়েছে আট কোটি। বাইটড্যান্স এই অ্যাপের মাধ্যমে হয়ত চীনের কাছে ব্যবহারকারীদের তথ্য হস্তান্তর করতে পারে এমন আশঙ্কা দেখা দেওয়ায় এটি বন্ধের হুমকি দিয়েছিলেন ট্রাম্প।

এছাড়াও টিকটক এর মার্কিন ব্যবহারকারীদের উপর গুপ্তচরবৃত্তি করছে বলেও দাবি করেন প্রেসিডেন্ট ডোনান্ড ট্রাম্প। তবে টিকটক বলছে, এখন পর্যন্ত চীনকে কোন প্রকার তথ্য সরবরাহ করা হয়নি। এমনকি ব্যবহারকারীর তথ্য চীন চাইলেও তা টিকটক সরবরাহ করতে বাধ্য নয় বলে জানিয়েছে তারা।

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমাগত চাপের কারণে হয়তো যুক্তরাষ্ট্রে নিজেদের ব্যবসার অংশটি বিক্রি করে দিতে বাধ্য হবে বাইটড্যান্স। চীনের বিভিন্ন প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, টিকটক কেনাবেচার অর্থের একটি বড় অংশ পাওয়ার দাবিদার যুক্তরাষ্ট্র। কারণ আমরাই এটি সম্ভব করতে পারছি।

Advertisement

টিটিএন/এমএস