আন্তর্জাতিক

আমিরাতে পালিয়েছেন স্পেনের সাবেক রাজা হুয়ান কার্লোস!

দুর্নীতির একটি অভিযোগের তদন্ত শুরু হওয়ার পর দেশ ছেড়েছেন স্পেনের সাবেক রাজা হুয়ান কার্লোস। ছয় বছর আগে ছেলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন কার্লোস। গত জুনে সৌদি আরবের একটি দ্রুতগতির রেল প্রকল্পের চুক্তিতে কার্লোসের বিরুদ্ধে দুর্নীতি অভিযোগ তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন স্পেনের সুপ্রিম কোর্ট।

Advertisement

দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত শুরু হওয়ার পর দেশ ছেড়ে পালানো সাবেক স্প্যানিশ রাজা হুয়ান কার্লোস এখন সংযুক্ত আরব আমিরাতে আছেন। আবুধাবির এমিরেটস প্যালেস হোটেলে অবস্থান করছেন তিনি। শুক্রবার (৭ আগস্ট) স্পেনের দৈনিক সংবাদপত্র এবিসি নিউজের প্রতিবেদনে এমন দাবি করা হয়েছে।

১৯৭৫ সালে স্পেনের স্বৈরশাসক জেনারেল ফ্রাঙ্কোর মৃত্যুর পর দেশটিকে গণতন্ত্রের পথে নিয়ে আসার ক্ষেত্রে হুয়ান কার্লোস বেশ দক্ষতার সঙ্গে নেতৃত্ব দিয়েছেন। রাজসিংহাসনে ৪০ বছর থাকার পর ২০১৪ সালে তিনি ছেলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন। সৌদি আরবের মক্কা-মদিনা রেল প্রকল্পের জন্য ৬০০ কোটি ডলারের কাজ পেয়েছিল স্পেনের একটি কোম্পানি।

২০১৪ সালে ক্ষমতা হস্তান্তরের পর সৌদি প্রকল্পের সঙ্গে হুয়ান কার্লোসের দুনীতির সংশ্লিষ্টতা প্রমাণের উদ্যোগ নেয় দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। তিনি যতক্ষণ পর্যন্ত রাজা ছিলেন, ততক্ষণ পর্যন্ত তার দায়মুক্তি ছিল। গত জুনে তদন্ত শুরুর নির্দেশ দেন আদালত। এরপর হঠাৎই দেশ ছাড়েন সাবেক এ রাজা। তবে তিনি কোথায় আছেন সে ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

Advertisement

এবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার (৩ আগস্ট) সকালে প্যারিস থেকে আবুধাবিগামী একটি ব্যক্তিগত বিমান স্পেনের ভিগো শহরে অবতরণ করে। সেখান থেকে হুয়ান কার্লোস, চার নিরাপত্তারক্ষী ও আরেক ব্যক্তিকে বিমানে তুলে নেয়া হয়। আবুধাবির আল বাতিন বিমানবন্দরে পৌঁছার পর কার্লোস ও তার সঙ্গীদের একটি হেলিকপ্টারে করে হোটেল এমিরেটস প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়।

স্পেনের রাজপ্রাসাদের মুখপাত্র দাবি করেছেন, কার্লোস কোথায় আছেন তা তার জানা নেই। তার আইনজীবীর কাছ থেকেও এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে সাড়া পাওয়া যায়নি। স্পেন সরকারও এ ব্যাপারে কিছু বলছে না। কিছু কিছু মিডিয়ার খবরে দাবি করা হয়েছে, কার্লোস ডমিনিকান রিপাবলিক ও পর্তুগালের বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করছেন। তবে দুই দেশের কেউই কার্লোসের ব্যাপারে কিছু জানা নেই বলে দাবি করেছে।

স্পেনের রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়, কয়েক সপ্তাহ আগে তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে তদন্ত শুরু হয়েছে। সাবেক রাজা হুয়ান কার্লোস তার দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত চিঠির মাধ্যমে ছেলে ফিলিপকে জানিয়েছেন। সাবেক এই রাজা জানিয়েছেন, তদন্তের জন্য যদি কথা বলার প্রয়োজন হয় তাহলে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে।

বিএ

Advertisement