আন্তর্জাতিক

কেরালায় ভূমিধসে ১৫ চা শ্রমিকের মৃত্যু

দক্ষিণ ভারতের রাজ্য কেরালায় ভারী মৌসুমী বৃষ্টির ফলে সৃষ্ট ভূমিধসে অন্তত ১৫ জন চা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবারের ওই ভূমিধসের ঘটনায় মাটি ও আবর্জনার নিচে চাপা পড়েছেন আরও অর্ধশতাধিক। তাদের উদ্ধারে অভিযান চলছে। দেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

Advertisement

শুক্রবার সকালের দিকে চা বাগানের শ্রমিকরা যখন ঘুমাচ্ছিলেন তখন কেরালার ইদুক্কি জেলায় এই ভূমিধসের ঘটনা ঘটে বলে রয়টার্সকে জানিয়েছেন ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর এইচ দিনেশান। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ১৫ জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। এছাড়া আরও ৫১ জন মাটি ও আবর্জনা চাপা পড়েছেন বলে শঙ্কা করা হচ্ছে।

ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর এইচ দিনেশান বলেন, ‘জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। আবহাওয়া খুবই কুয়াশাচ্ছন্ন হওয়া উদ্ধার অভিযানে হেলিকপ্টার যুক্ত করা যায়নি।’

কেরালা রাজ্য সরকার পরিচালিত আবহাওয়া দফতরের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার ইদুক্কি জেলায় প্রায় ২০ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। কেরালার প্রাদেশিক রাজধানী থিরুভানাথাপুরাম থেকে আনুমানিক ২৪০ কিলোমিটার উত্তরে ইদুক্কি জেলার অবস্থান।

Advertisement

ইদুক্কির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস সুরেশকুমার বলেন, ‘বিগত দুই দিন ধরে দুর্ঘটনাকবলিত ওই এলাকায় ব্যাপক ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। ওইদিন মধ্যরাতের পর ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। তাতে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের বেশিরভাই চা বাগানের শ্রমিক। ভূমিধসের সময় তারা সবাই ঘুমাচ্ছিলেন।’

২০১৮ সালে শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে কেরালা। তাতে শত শত মানুষের প্রাণহানি ঘটে। ওই সময় বন্যা ও ভূমিধসে মারাত্মকভাবে বিপর্যসন্ত জেলাগুলোর মধ্যে একটি ছিল ইদুক্কি।

এসএ/জেআইএম

Advertisement