রাজনীতি

বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিনের প্রচারণায় হামলার অভিযোগ

ঢাকা-৫ সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদের প্রচারণায় হামলার অভিযোগ উঠেছে।

Advertisement

আজ মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর কদমতলী থানার ৬১ নং ওয়ার্ডের কুদারবাজার এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এতে সাংবাদিক মঞ্জুর মিলন এবং বিএনপির ১০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সাংবাদিক মিলনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন।

এ হামলার নিন্দা জানিয়ে বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ নির্বাচন কমিশনকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দিন, দ্রুততার সঙ্গে হামলাকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করুন।

Advertisement

গতকাল সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) থেকে নির্বাচনের প্রচারণা শুরু করেন ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সালাহউদ্দিন। আজ বিকেল ৩টায় কদমতলী থানার ৬১ নং ওয়ার্ড থেকে শুরু করে তিনি বাবর আলী মার্কেট, হাজী নাসির উদ্দিন সড়ক, সরাই মসজিদ সড়ক, হাজী কমর আলী সড়ক, দক্ষিণ কুতুবখালির বিভিন্ন গলি, উত্তর কুতুবখালি খালপাড়, দনিয়া কবরস্থান সড়ক, দনিয়া সড়কসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান। এসময় তার সঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৬১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাবেক দনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জুম্মন মিয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বাদল, যাত্রাবাড়ী থানা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিকসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রচারণার ফাঁকে এক পথসভায় সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, এই সরকার জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমরা মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি।

ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমি এই এলাকার সন্তান, এই এলাকা থেকে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি। আমরা ১৭ তারিখ ভোটকেন্দ্রে থাকবো। আপনারা ভোটকেন্দ্রে যাবেন এবং যাকে খুশি তাকে ভোট দেবেন, এটা আপনাদের কাছে আমার দাবি। আমি চাই জনগণ তার অধিকার ফিরে পাক।

কেএইচ/এইচএ/এমকেএইচ

Advertisement