খেলাধুলা

আজহারের সময় শেষ, পাকিস্তানের অধিনায়ক হচ্ছেন রিজওয়ান

গতবছরের অক্টোবরে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদের কাছ থেকে অধিনায়কত্ব ছিনিয়ে নিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তখন টেস্ট অধিনায়কত্ব দেয়া হয় আজহার আলীকে এবং সীমিত ওভারের দায়িত্ব পান আরেক টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান বাবর আজম।

Advertisement

বছর ঘুরে আরেক অক্টোবর আসতেই ফের অধিনায়ক হিসেবে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের দিকে ঝুঁকছে পিসিবি। মাত্র এক বছর অধিনায়কত্ব করেই দায়িত্ব হারাতে চলেছেন আজহার আলী। তার জায়গায় টেস্ট ক্রিকেটে পাকিস্তানের নতুন অধিনায়ক হতে চলেছেন ডানহাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান।

শুধু রিজওয়ান নন, পাকিস্তানের নতুন টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার দৌড়ে রয়েছে বাবর আজমের নামও। নতুন অধিনায়ক কে হবেন তা এখনও অনিশ্চিত, তবে আজহার যে আর টেস্ট অধিনায়ক থাকছেন না- তা পুরোপুরি নিশ্চিত। ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ড সফরে নতুন অধিনায়কের অধীনেই খেলবে পাকিস্তান দল।

পিসিবির একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, টেস্ট অধিনায়ক আজহার আলীর নেতৃত্ব নিয়ে খুব একটা খুশি নয় বোর্ড। কিন্তু পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খানের কিছুটা সমর্থন ছিলো বলেই এতদিন আজহারকে সরানোর কথা ভাবেনি পিসিবি।

Advertisement

তবে এবার নতুন করে মূল্যায়ন করা হয়েছে আজহারের পারফরম্যানস এবং সেখানে তাকে অধিনায়ক হিসেবে রাখার পক্ষে কোনো যুক্তি খুঁজে পায়নি বোর্ড। এরই মধ্যে আজহারের সঙ্গে দেখা করে এ সিদ্ধান্তের কথা তাকে জানিয়ে দিয়েছেন পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান।

জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো জানাচ্ছে, আগামী দশ দিনের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে আজহারের সঙ্গে সাক্ষাতে বসে বোর্ড। সেখানে কাগুজে আনুষ্ঠানিকতা সেরে নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা দেবে তারা। যে নামটি মোহাম্মদ রিজওয়ান হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

পাকিস্তানের অল্প যে কয়জন ব্যাটসম্যান তিন ফরম্যাটেই সমানভাবে খেলে থাকেন, তাদের মধ্যে অন্যতম বাবর আজম। এছাড়া তিনি টেস্ট ফরম্যাটে আজহার আলীর ডেপুটি অধিনায়কও বটে। তাই শুরুতে বাবরকে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিসহ তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক হিসেবে নিয়োগ দেয়ার কথা ভাবা হচ্ছিলো।

তবে সাম্প্রতিক সময়ে সাদা পোশাকে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে নজর কেড়েছেন রিজওয়ান। সরফরাজ অধিনায়ক থাকাকালীন সময় প্রায় দুই বছর দলে তেমন সুযোগই পাননি ২৮ বছর বয়সী এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তবে আজহার বাদ পড়ার পর থেকে তিনিই দলের এক নম্বর উইকেটরক্ষক।

Advertisement

এছাড়া ব্যাট হাতেও রিজওয়ান দিচ্ছেন নির্ভরতা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দলে ফিরে প্রথম ইনিংসেই করেছিলেন ফিফটি। করোনা লকডাউনের পর মাঠে নেমে সবশেষ ইংল্যান্ড সফরে পেয়েছেন সিরিজ সেরা খেলোয়ারের পুরস্কার। এছাড়া ঘরের টুর্নামেন্ট ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপে তার নেতৃত্বেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে খাইবার পাখতুন। ফলে অধিনায়ক হিসেবে তার গ্রহণযোগ্যতাও বেড়েছে অনেক।

এসএএস/পিআর