দেশজুড়ে

‘সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়ে বিবেক বিক্রি করা উচিত নয়’

সাংবাদিকতা সৃজনশীল পেশা। এখানে প্রাপ্তি কম, দিতে হয় বেশি। সাংবাদিকতাকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে বিশেষ সুবিধা নিয়ে অনেকে এ মহান পেশাটা বিতর্কিত করছেন। অল্পতে তুষ্ট থাকতে না পারলে সাংবাদিকতায় আসা উচিত নয়। তাই এ পেশায় নতুন যুক্ত হওয়াদের প্রতি অনুরোধ, নিজের বিবেক বিক্রি করবেন না। সত্তা বিক্রির মানসিকতা থাকলে সাংবাদিকতায় না এসে ব্যবসায় যুক্ত হন।

Advertisement

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) অনলাইনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম কক্সবাজার টিভির (সিটিভি) প্রতিনিধি সম্মেলন ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে সনদ ও সরঞ্জাম বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কউক) চেয়াম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদ এসব কথা বলেন।

কক্সবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালেয় আয়োজিত প্রতিনিধি সভায় কউক চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘যেকোনো যুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঝুঁকি নিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি জানানোর দায়িত্ব পালন করে থাকেন একজন সাংবাদিক। তাই বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার কোনো বিকল্প নেই। বিত্তশালী হতে সাংবাদিকতায় এলে দালালিপনার লাইসেন্স নেয়া উচিত। সৎ সাংবাদিকের পরিবারে অভাব লেগে থাকে। একজন সাংবাদিক ও তার পরিবারের নামে অর্ধশতাধিক দলিলের সন্ধান পাওয়া কখনো পেশাদার সাংবাদিকতা হতে পারে না।’

প্রশিক্ষণ রিপোর্টারদের পেশাদারিত্বের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ উল্লেখ করে কউক চেয়ারম্যান বলেন, সাংবাতিকতায় দলমত সামনে আনা অবাঞ্ছনীয়। একদিন সকল কিছুর হিসাব দিতে হবে। সেই চিন্তায় ন্যায়-নৈতিকতার মধ্যে থাকতে হবে। শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রকাশ একজন জেনুইন সাংবাদিকের কাছে কখনো কাম্য নয়। এসব থেকে বিরত থাকতে প্রশিক্ষণার্থী সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

Advertisement

কক্সবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রাসেল চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক ডেইলি সান প্রতিনিধি ওয়াহিদ রুবেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ডেইলি স্টার প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলী জিন্নাত, দৈনিক সমুদ্রকণ্ঠের প্রকাশ ও সম্পাদক মঈনুল হাসান পলাশ, দৈনিক যায়যায়দিন প্রতিনিধি জাবেদ আবেদিন শাহীন, কক্সবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ইত্তেফাক ও জাগো নিউজ প্রতিনিধি সায়ীদ আলমগীর, সময়ের আলোর আমিনুল ইসলাম মো. রাশেদ এবং কক্সবাজার টিভির সম্পাদক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

এর আগে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যায় ৬টা পর্যন্ত দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সিটিভির ২০ জন রিপোর্টার অংশগ্রহণ করেন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে তাদের হাতে সনদ তুলে দেন প্রধান অতিথি কউক চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদ।

এ সময় কক্সবাজারে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

Advertisement

সায়ীদ আলমগীর/এসআর