জাতীয়

পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় ৫ জনকে পুলিশে সোপর্দ

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অফিস সহায়ক নিয়োগের পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। পরে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে তাদেরকে শ‌নিবার (২৮ ন‌ভেম্বর) পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে মন্ত্রণালয়।

Advertisement

আটকরা হলেন- নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার গরমা গ্রামের মো. আব্দুল হামিদ তালুকদারের ছেলে মো. আল মামুন তালুকদার, ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেওলা শিবপুর গ্রামের মোহাম্মদ শাহাবউদ্দিন খন্দকারের ছেলে মো. হামিম, ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার বাঘুটিয়া গ্রামের মো. আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে মো. আকরাম হোসেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মজলিশপুর গ্রামের মহিদ্দিন আহমেদের ছেলে মো. তাকরিম আহমেদ এবং ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের বিরই গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন।

গত ২৭ নভেম্বর বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অফিস সহায়ক নিয়োগে রাজধানীর ৮টি কেন্দ্রে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার মৌখিক পরীক্ষা নেয়ার সময় এই পরীক্ষার্থীদের আচরণ এবং প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষকদের সন্দেহ হয়।

এ সময় তাদের লিখিত পরীক্ষার বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর জিজ্ঞাসা করলেও তার জবাব মৌখিক পরীক্ষার সময় দিতে ব্যর্থ হন তারা। এ সময় বোর্ডের সদস্যরা তাদের হাতের লেখা মিলিয়ে দেখেন, উত্তরপত্রে উল্লেখিত হাতের লেখা তাদের নয়।

Advertisement

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পরীক্ষার্থী মোহাম্মদ আল মামুন তালুকদার স্বীকার করেন, তার লিখিত পরীক্ষা দিয়েছেন জনৈক সৈকত জামান। অপর পরীক্ষার্থী মো. হামিম স্বীকার করেন, তার পরিবর্তে লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার মো. কেফায়েত উল্লাহ খন্দকারের ছেলে মো. সুমন খন্দকার।

মো. আকরাম হোসেন জানান, লিখিত পরীক্ষায় তার পরিবর্তে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার হারুন মাতুব্বরের ছেলে জুয়েল মাতুব্বর অংশ নেন। তাকরিম আহমেদ স্বীকার করেন, ১০ হাজার টাকার চুক্তিতে তার পরীক্ষা দিয়েছেন জনৈক ওমর ফারুক। অপর পরীক্ষার্থী মো. আনোয়ার হোসেন স্বীকার করেন, বিআরডিবিতে চাকরিরত জনৈক আলমগীর কবির সরকারের মাধ্যমে একজনের সাথে চুক্তি করেন। ওই ব্যক্তি তার পরীক্ষা দিয়েছেন।

এমইউ/এমএসএইচ

Advertisement