আইন-আদালত

বিইআরসির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) থেকে এলপিজি (সিলিন্ডার) গ্যাসের দাম পুনঃনির্ধারণ সংক্রান্ত বিষয়ে আদালতের আদেশ অমান্য করায় সংস্থাটির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে আগামী ১৫ ডিসেম্বর পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

Advertisement

বিইআরসির চেয়ারম্যান, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব, পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার (২৯ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন- ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন- ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী। এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের পক্ষে ছিলেন- সৈয়দ মাহসিব হোসেন।

Advertisement

এর আগে গত ২৫ আগস্ট বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক মাসের মধ্যে দাম নির্ধারণ করে প্রতিবেদন দিতে আদেশ দিয়েছিল। ওই আদেশের পর ৩ মাস কেটে গেলেও প্রতিবেদন দাখিল না করায় হাইকোর্ট আজ এ আদেশ দেন।

ভোক্তা অধিকার সংস্থা কনজিউমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সম্পূরক আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত রুল জারি করেন। আগামী ১৫ ডিসেম্বর এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য রেখেছেন।

এর আগে গত ১৭ নভেম্বর এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন এক হলফনামার মাধ্যমে জানিয়েছিল- এলপিজি গ্যাসের মূল্য পুনঃনির্ধারণ করে ৩টি বিধিমালা খসড়া করে ২০১৩ সালে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আইন মন্ত্রণায়ের কাছে ভেটিংয়ের জন্য পাঠায় কমিশন। কমিশন ৬ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিও করেছে। যাদেরকে মূল্য নির্ধারণ সংক্রান্ত সুপারিশ দাখিল করতে বলা হয়েছে।

আদালতে দাখিলকৃত হলফনামায় আরও বলা হয়, খসড়া বিধিমালা চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত এবং কমিটির সপারিশ না দেয়া পর্যন্ত কমিশন মূল্য নির্ধারণ করতে পারে না। পরে আদালত তাদের এই হলফনামা নাকচ করে আদালত অবমাননার রুল জারি করেন।

Advertisement

আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলেও এলপিজি (সিলিন্ডার) গ্যাসের দাম আমাদের দেশে কমছে না বরং বেড়েই চলেছে। অথচ আইনই কমিশনকে ক্ষমতা দিয়েছে মূল্য নির্ধারণের জন্য। কিন্তু কমিশনের ক্ষমতা থাকা সত্ত্বেও তারা কোনো কাজ করেনি। আদালত নির্দেশ প্রতিপালন না করে বরং তারা আদালত অবমাননা করেছেন।

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলেও এলপিজি (সিলিন্ডার) গ্যাসের দাম পুনঃনির্ধারণ না করাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- জানতে চেয়ে ২০১৬ সালের ১৩ নভেম্বর রুল জারি করেছিল হাইকোর্ট।

এফএইচ/এফআর/এমকেএইচ