খেলাধুলা

শঙ্কামুক্ত এরিকসেন, সাড়ে ১২টায় পুনরায় শুরু ম্যাচ

আপাতত শঙ্কামুক্ত মাঠেই লুটিয়ে পড়া ডেনমার্কের তারকা মিডফিল্ডার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন। তাই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, আজ রাতেই মাঠে গড়াবে স্থগিত করা ম্যাচের বাকি অংশ। স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮টায় (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টা) আবার শুরু হবে ম্যাচটি।

Advertisement

সতীর্থ ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের শঙ্কামুক্ত হওয়ার খবর পেয়ে আজ (শনিবার) রাতেই ম্যাচ খেলতে রাজি হয়েছেন ডেনমার্কের ফুটবলাররা। এক টুইটবার্তায় এ খবর নিশ্চিত করেছে ডেনমার্ক ফুটবল এসোসিয়েশন।

এ সিদ্ধান্ত ম্যাচের ৪৩ মিনিট থেকেই আবার শুরু হবে খেলা। পুনরায় ম্যাচ শুরুর পর প্রথমার্ধের বাকি থাকা চার মিনিটের খেলা হবে আগে। এরপর দেয়া হবে পাঁচ মিনিটের বিরতি। পরে শুরু করে দেয়া হবে দ্বিতীয়ার্ধের খেলা। ইউরো কাপের আয়োজক সংস্থা উয়েফার টুইটবার্তায় জানা গেছে এ খবর।

এদিকে বর্তমানে কোপেনহেগেনের রাইয়োহস্পিটালেটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এরিকসেন। তার অবস্থা এখন স্থিতিশীল বলে জানিয়েছে ডেনমার্ক ফুটবল এসোসিয়েশন এবং যেকোনো ডাকে সাড়াও দিচ্ছেন এরিকসেন। তবে সতর্কতাস্বরূপ প্রয়োজনীয় সব পরীক্ষানিরীক্ষা করা হচ্ছে তার।

Advertisement

সবাইকে হতবিহ্বল করে দেয়া ঘটনাটি ঘটেছে ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচের ৪৩ মিনিটের সময়। ফিনল্যান্ডের রক্ষণভাগের সামনে একটি থ্রো-ইন পেয়েছিল ডেনমার্ক। কাছাকাছি থাকায় এরিকসেনের উদ্দেশ্যেই থ্রো-ইনটি করেন সতীর্থ খেলোয়াড়। কিন্তু সেই বল আর রিসিভ করতে পারেননি এরিকসেন।

থ্রো-ইন থেকে আসা বলটি গায়ে এসে লাগার আগেই জ্ঞান হারিয়ে নিথরভাবে মাটিতে আছড়ে পড়েন এরিকসেন। সঙ্গে সঙ্গে মেডিকেল টিমকে ডাকেন ম্যাচের রেফারি ও তার সতীর্থ খেলোয়াড়রা। প্রাথমিকভাবে সিপিআর দিয়ে জ্ঞান ফেরানোর চেষ্টা করে মেডিকেল টিম।

কিন্তু তাতে কোনো কাজ হয়নি। প্রায় দশ মিনিট ধরে সিপিআর ও অন্যান্য প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পরেও জ্ঞান ফেরেনি এরিকসেনের। তাই স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। মাঠ ছাড়ার সময় মুখে অক্সিজেন মাস্ক নিয়েই ওপরের দিকে তাকান এরিকসেন, হাত নেড়ে সাড়াও দেন।

এরিকসেন মাঠের লুটিয়ে পড়ার ঘটনায় ডেনমার্কের খেলোয়াড় ও গ্যালারিতে থাকা দর্শকদের বেশিরভাগই কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ জরুরি অবস্থার কারণে ম্যাচটি আর না চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় আয়োজকরা। মাঠের খেলা স্থগিত হওয়ার আগে হওয়া ৪৩ মিনিটে গোলশূন্য ছিল দুই দলই। তবে ম্যাচে একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল ডেনমার্কেরই।

Advertisement

এসএএস/এমএইচআর