প্রবাস

ইপিএস বাংলা কমিউনিটির উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগঠন ‘ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়া’র উদ্যোগে গরিব ও অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার দেশের আটটি বিভাগের বেশকিছু জেলায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

Advertisement

দূর পরবাসে কল্যাণকর কিছু করার প্রত্যয় নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠন। ‘আমরা প্রবাসী, আমরা একা নই, আমরা শক্তি, আমরা সমষ্টি স্লোগানে উজ্জীবিত হয়ে ২০১২ সালের ১২ জুলাই সর্বপ্রথম ফেসবুকের মাধ্যমে এই সংগঠন আত্মপ্রকাশ করে।

প্রবাসীদের দুঃখ কষ্ট বোঝার কেউ না থাকলেও দেশের বিপদে সব সময় প্রবাসীরা এগিয়ে আসে। এবারও এর ব্যতিক্রম নয় দেশের ক্রান্তিলগ্নে ইপিএস বাংলার এই কার্যক্রম। করোনা পরিস্থিতিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম বিপাকে দেশের খেটে খাওয়া মানুষগুলো।

তাইতো ফেসবুকে ত্রাণ তহবিলে অনুদান দেয়ার ডাক দেয়, ‘আমরা দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী, হৃদয় দিয়ে বাংলাদেশকে ভালোবাসি’ এই কণ্ঠে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দ্রুততম ত্রাণ তহবিল গঠন করা হয়।

Advertisement

সারা দেশে ছড়িয়ে থাকা ইপিএস বাংলার শতশত চৌকস প্রতিনিধিদল খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করেছে বাংলাদেশে।

ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সদস্যরা জানায়, মানব সেবাই আমাদের মূল লক্ষ্য এবং প্রবাসীদের হৃদয়ে গেঁথে থাকা দুটি জিনিস মা এবং জন্মভূমি। মা এবং জন্মভূমি বাংলাদেশ ভালো থাকলে আমরাও শত কষ্টের মাঝে ভালো থাকি। যাদের অর্থায়ন, শ্রম এবং সহযোগিতায় এই মহৎ উদ্যোগ সফলতার সাথে সম্পন্ন হয়েছে তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে গরিব ও অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ইপিএস বাংলা সদস্যরা।

উল্লেখ্য, এর আগেও ইপিএস বাংলা দেশজুড়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় ঢাকায় ২০০টি অসহায় পরিবারের মাঝে উপহার প্রেরণ করে এবং ফ্রন্টলাইন ফাইটার চিকিৎসকদের করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুরক্ষায় পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) উপহার দিয়েছে বিভিন্ন জেলায়।

এর মধ্যে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের হাতে উপহারের ৫০টি পিপিই এবং নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজার হাতে ৬০টি পিপিইসহ রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায়, খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন এর হাতে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসীদের দেয়া উপহারের পিপিই (সুরক্ষা সামগ্রী) তুলে দেয়া হয়।

Advertisement

এমআরএম/জিকেএস