আন্তর্জাতিক

বিশ্বে করোনায় আরও ৭ হাজারের বেশি মৃত্যু

গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে আরও সাত হাজার ৩৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে চার লাখ ৪৩ হাজার ৬৮ জন।

Advertisement

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৯ কোটি ৫৩ লাখ ৪৫ হাজার ৫১৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৪১ লাখ ৮২ হাজার ৮২৮ জন। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৭ কোটি ৭১ লাখ ৮২ হাজার ৬২৫ জন।

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুতে এখনও বিশ্বে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ৫২ লাখ ৮৭ হাজার ২৬৯ জনের। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ছয় লাখ ২৭ হাজার ৩৯ জন। আর সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ৯৫ লাখ ৪৮ হাজার ৪৬৮ জন।

Advertisement

তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ১৪ লাখ ৩৯ হাজার ৭৬৪ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন চার লাখ ২১ হাজার ৪১১ জন।

তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। তবে মৃত্যুর দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে দেশটি। সেখানে এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৫০ হাজার ৫৮৬ জনে।

সংক্রমণ ও মৃত্যুর এ তালিকায় ১৪ নম্বরে থাকলেও গত ২৪ ঘণ্টায় ইন্দোনেশিয়ায় সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এ ভাইরাসে এ সময়ে মারা গেছেন ১৪৮৭ জন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছিল ১২৬৬ জনের।

তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ২৬ নম্বরে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন হয়েছেন ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৮২৭ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৯ হাজার ৫২১ জন। তালিকায় বাংলাদেশের আগে রয়েছে কানাডা আর পরে রয়েছে বেলজিয়াম।

Advertisement

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশটিতে করোনায় প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। ওই বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। এরপর কয়েক দফায় পরিস্থিতির উন্নতি-অবনতি হয়। তবে গত কয়েক দিনের পরিস্থিতি সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থায় রয়েছে।

এমএইচআর/জেআইএম