দেশজুড়ে

খুলনায় করোনা টিকা নিয়ে ভোগান্তিতে মানুষ, স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই

খুলনা জেনারেল হাসপাতালে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিতে আসা মানুষকে পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে। সিরিয়াল ভঙ্গ ও স্থান সংকটের কারণে মানুষের সমাগম ও টিকা দেয়ার এসএমএস জটিলতা নিয়ে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা দেখা গেছে। এ জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকে দুষছেন সাধারণ মানুষ।

Advertisement

সোমবার (২৬ জুলাই) সকালে খুলনা জেনারেল হাসপাতালে টিকা নিতে গিয়েছিলেন নগরীর লবনচরা এলাকার হালিমা বেগম (৬৫)। মেরুদণ্ডে সমস্যা আছে তার। সকাল ৭টার পরে এসে লাইনে দাঁড়ান তিনি। বেলা সোয়া ১১ টায় তিনি এসএমএস চেক পয়েন্টের সামনে পৌঁছান। এর আগে পেছন থেকে এসে এক মহিলা কাগজপত্র দেখিয়ে ভেতরে টিকা দিতে চলে যান। তিনি সেখানে উপস্থিত কর্মকর্তাদের অভিযোগ করেও কোনো সুফল পাননি। একই অভিযোগ টুটপাড়ার ফারজানা আফরোজ, রূপসার এলাইপুরের সাদিক হোসেন, রইসুল ইসলামের।

নগরীর খালিশপুর এলাকার বাসিন্দা দিলরুবা বলেন, ‘আমার বাসা যেহেতু খালিশপুর এলাকায় তার টিকা কেন্দ্র তিতুমীর নেভী ক্যাম্পে। সেখানে না দিয়ে আমাদের জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখানে প্রচুর ভিড়। একে অপরের গা ঘেঁষে দাঁড়তে হচ্ছে। অনেক কষ্ট করে বুথে গিয়েছি। সেখানেও আধাঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকার পর ভ্যাকসিন নিয়েছি। তাছাড়া এখানকার ব্যবস্থাপনা মোটেই ভালো না। ভ্যাকসিন দেয়ার পর অধাঘণ্টা ডাক্তারের পর্যবেক্ষণে থাকতে হয়। কিন্তু আমাদের টিকা দেয়ার পর বুথ থেকে বের করে দেয়া হয়।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. এস এম মুরাদ হোসেন বলেন, এখানে জায়গার অনেক স্বল্পতা রয়েছে। মানুষ সচেতন না। যতক্ষণ তারা নিজেদের ব্যাপারটা বুঝতে পারবেন না ততক্ষণ আমরা এ অদৃশ্য শত্রুর মোকাবেলা করতে পারব না। আমরা নিয়ম মাফিক আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি।’

Advertisement

আলমগীর হান্নান/আরএইচ/জেআইএম