আন্তর্জাতিক

কানাডায় আদিবাসী শিশুদের নির্যাতন-হত্যা, ক্ষমা চাইলেন যাজকরা

কানাডায় ঊনবিংশ ও বিংশ শতাব্দীতে গির্জায় শিশুদের নির্যাতন ও হত্যার ঘটনায় আদিবাসীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন ক্যাথলিক গির্জার যাজকরা। সরকার ও ধর্মবিষয়ক কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পরিচালিত এসব স্কুলে জোর করে আদিবাসী শিশুদের এনে রাখা হতো। পরে সেখানে শিশুদের শারীরিক, মানসিক নির্যাতনের পাশাপাশি যৌন হয়রানিও করা হতো। এভাবে নির্যাতনের মাধ্যমে কয়েকশ শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

Advertisement

কানাডিয়ান কনফারেন্স অব ক্যাথলিক বিশপস শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আমরা স্বীকার করে নিচ্ছি ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের কিছু সদস্য ওই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ছিলেন। এ ঘটনায় আমরা গভীরভাবে মর্মাহত ও দুঃখিত। দ্ব্যর্থহীনভাবে আমরা ক্ষমা চাচ্ছি।

কানাডার ক্যাথলিক গির্জায় শিশুদের গণকবরের সন্ধান পাওয়ার পর গত জুন মাসে পোপ ফ্রান্সিস এ হত্যাকাণ্ডের জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করলেও এখন পর্যন্ত ক্ষমা চাননি।

এর আগে কানাডার একটি পরিত্যক্ত আবাসিক স্কুলে গণকবরের সন্ধান পাওয়া যায়। সেখানে ২১৫ শিশুর দেহাবশেষের সন্ধান মেলে। ধারণা করা হয় এরা সবাই আদিবাসী শিশু। ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় কামলুপস ইন্ডিয়ান রেসিডেনসিয়াল স্কুল নামের ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি ১৯৭৮ সালে বন্ধ হয়ে যায়।

Advertisement

এ ধরনের স্কুলের মধ্যে কামলুপস ছিল সবচেয়ে বড় স্কুল। ১৮৮০ সালে রোমান ক্যাথলিক প্রশাসনের অধীনে এ স্কুল প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৫০ সালে স্কুলটিতে ৫শ জনের মতো শিক্ষার্থী ছিল। কেন্দ্রীয় সরকার ১৯৬৯ সালে স্কুলটির দায়িত্ব নিয়ে নেয়। ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত স্কুলটিকে তারা স্থানীয় শিক্ষার্থীদের আবাসন হিসেবে ব্যবহার করে।

এমএসএম/টিটিএন/এএসএম