আন্তর্জাতিক

জার্মান নির্বাচন: এগিয়ে এসপিডি, হারের মুখে মেরকেলের দল

জার্মানির জাতীয় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষে হয়েছে। এরই মধ্যে প্রকাশিত হয়েছে সাময়িক ফল। এতে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এসপিডি) এগিয়ে রয়েছে। বিদায়ী চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেলের ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়ন (সিডিইউ) এসপিডি’র চেয়ে ১ দশমিক ৬ শতাংশ ভোটে পিছিয়ে রয়েছে। খবর ডয়েচে ভেলের।

Advertisement

স্থানীয় সময় রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাত সোয়া ১০টার দিকে প্রকাশিত সাময়িক ওই ফলাফল অনুযায়ী, এসপিডি পেয়েছে ২৫ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট। সিডিইউ পেয়েছে ২৪ দশমিক ২ শতাংশ।

এছাড়া গ্রিন পার্টি পেয়েছে ১৪ দশিমিক ৩ শতাংশ, এফডিপি ১১ দশমিক ৫ শতাংশ, অভিবাসনবিরোধী এএফডি ১০ দশমিক ৬ শতাংশ, বাম দল ৫ শতাংশ ও অন্যান্য কয়েকটি দল ৮ দশমিক ৬ শতাংশ ভোট পেয়েছে।

Advertisement

এসপিডির চ্যান্সেলর প্রার্থী ওলাফ শোলজ (বামে) ও সিডিইউ প্রার্থী আরমিন লাশেট। ছবি: সংগৃহীত

সাময়িক এ ফল বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, ২০১৭ সালের নির্বাচনের তুলনায় সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এসপিডি) প্রায় সাড়ে চার শতাংশ ভোট বেশি পেয়েছে। আর গ্রিন পার্টির ভোট বেড়েছে ছয় শতাংশের বেশি। তবে চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেলের সিডিইউ দলের ভোট কমেছে প্রায় আট শতাংশ।

এর আগে রোববার জার্মানির স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পর প্রকাশিত বুথ ফেরত জরিপের ফলাফলে দেখা গিয়েছিল, সিডিইউ এবং এসপিডি সমান ২৫ শতাংশ করে ভোট পেতে যাচ্ছে। গ্রিন পার্টি পেতে যাচ্ছে ১৫ শতাংশ ভোট।

Advertisement

এদিকে, সাময়িক ফলাফলে এগিয়ে থাকা এসপিডির চ্যান্সেলর প্রার্থী ওলাফ শোলজ বলেছেন, ভোটাররা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে, তারা তাকে পরবর্তী চ্যান্সেলর হিসেবে চান।

তবে খারাপ ফল সত্ত্বেও সরকার গঠনে আশা হারাননি সিডিইউ দলের চ্যান্সেলর প্রার্থী আরমিন লাশেট। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের এমন ফলে আমরা সন্তুষ্ট হতে পারি না। তবে খারাপ ফল সত্ত্বেও আমরা রক্ষণশীলদের নেতৃত্বে একটি নতুন সরকার গঠনের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাবো।’

এএএইচ