ক্যাম্পাস

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শাবিপ্রবি খুলে দেওয়া হবে: উপাচার্য

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

Advertisement

রোববার (১৬) রাতে চলমান পরিস্থিতি নিয়ে অনুষ্ঠিত জরুরি সিন্ডিকেট সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

উপাচার্য বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে। আমরা চাই, চলমান এই পরিস্থিতিতে সবাই নিরাপদে থাকুক। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম আবার নতুন করে শুরু করবো। এই মুহূর্তে সবার নিরাপত্তার স্বার্থে সিন্ডিকেট মিটিংয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের বিষয়ে আজ আমাদের একটা মিটিং হওয়ার কথা ছিল। যেহেতু দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়েরও অনেকে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার চলমান পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আমরা সিন্ডিকেট সভায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছি।

Advertisement

তিনি আরও বলেন, চলমান পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের সশরীরে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখা কঠিন। এখন আর সশরীরে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখার পরিবেশ নেই। এজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। আগামীকাল দুপুর ১২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগ করতে হবে।

এর আগে দুপুরে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে অবরুদ্ধ করে রাখেন শিক্ষার্থীরা। পরে সন্ধ্যায় তাকে উদ্ধার করতে হলে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পাঁচ পুলিশ সদস্য, ১০ শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী, ১৫ জন শিক্ষার্থীসহ অন্তত ৩০ জন আহত হন।

বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হল প্রভোস্ট বডির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবি ও অবস্থান কর্মসূচিতে হামলার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। রোববার (১৬ জানুয়ারি) চতুর্থ দিনের মতো আন্দোলন করছিলেন শিক্ষার্থীরা। তবে বিকেলের পর থেকে উত্তপ্ত হয়ে পড়ে ক্যাম্পাস।

মোয়াজ্জেম আফরান/এআরএ

Advertisement