দেশজুড়ে

প্রেমিক বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর

পাবনার চাটমোহরে এক কলেজছাত্রের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছে এক মাদরাসাছাত্রী। সোমবার (২৭ জুন) চাটমোহর থানায় মামলাটি করে ভুক্তভোগী ওই কিশোরী। ধর্ষণে সে ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। অভিযুক্ত জিলহাজ হোসেন (১৮) চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের বালুদিয়ার গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে। তিনি স্থানীয় একটি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের ছাত্র।

Advertisement

ভুক্তভোগী কিশোরী স্থানীয় এমকেআর আহমদিয়া দাখিল মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী (১৪)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রায় এক বছর আগে বাড়ির পাশে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে জিলহাজের সঙ্গে পরিচয় হয় ওই কিশোরীর। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের আশ্বাসে আটমাস আগে থেকে ওই কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন জিলহাজ। বর্তমানে কিশোরী ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বিয়ের কথা বললে জিলহাজ টালবাহানা শুরু করেন।

নিরুপায় হয়ে রোববার (২৬ জুন) বিয়ের দাবিতে জিলহাজের বাড়িতে গিয়ে ওঠে ওই কিশোরী। খবর পেয়ে পালিয়ে যান জিলহাজ। এ সময় জিলহাজের এক আত্মীয় বিয়ের দায়িত্ব নিয়ে তাকে তার দাদির কাছে পৌঁছে দেন। কিন্তু বিয়ের ব্যবস্থা না হওয়ায় সোমবার চাটমোহর থানায় ধর্ষণ মামলা করে ভুক্তভোগী কিশোরী। জিলহাস তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে ওই কিশোরী।

Advertisement

এ বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন মঙ্গলবার (২৮ জুন) জাগো নিউজকে বলেন, মেয়েটির বাবা-মা নেই। বৃদ্ধ দাদির কাছেই সে থাকে। আসামিকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/এমএস