দেশজুড়ে

ঋণের টাকা যোগাড়ে দু’বছরের মামাতো বোনকে অপহরণ

কক্সবাজার শহরের হোটেল মোটেল জোনের মোহাম্মদীয়া গেস্ট হাউস থেকে দুই বছরের এক অপহৃত শিশুকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব। একইসঙ্গে অপহরণকারী স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার (১২ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার দিকে হোটেলের একটি কক্ষ থেকে অপহৃত শিশুকে উদ্ধার ও তাদের গ্রেফতার করা হয়।

Advertisement

গ্রেফতাররা হলেন- বরিশালের হিজলা উপজেলার উসমান মঞ্জিল ইউপির মো. কেরামত আলীর মেয়ে কেয়া (২০) ও তার স্বামী মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা সদরের কবুতর খোলা গ্রামের মো. নাছির উদ্দিনের ছেলে ছুফুয়ান খান রাহাত (২৪)।

গ্রেফতারদের বরাত দিয়ে র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (ল’ অ্যা ন্ড মিডিয়া) মো. বিল্লাল উদ্দিন বলেন, ২০২০ সালে কেয়া এবং ছুফুয়ান বিয়ে করেন। তখন ছুফুয়ান ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। কিন্তু ৮ মাস আগে তার চাকরি চলে যায়। বেকার অবস্থায় ধারদেনা করে সংসার চালাতে থাকেন। এর মধ্যে তাদের ২০ হাজার টাকার ঋণ গত ১০ আগস্ট পরিশোধ করার কথা ছিল।

ওই ঋণ পরিশোধ করতেই ১০ আগস্ট কেয়া তার মামার বাড়ি থেকে কৌশলে দুই বছরের মামাত বোনকে অপহরণ করে স্বামী ছুফুয়ানসহ কক্সবাজারে আসেন। ওঠেন মোহাম্মদীয়া গেস্ট হাউসে। তারপরে ভিকটিমের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ বাবদ ২০ হাজার টাকা দাবি করেন এবং টাকা না দিলে ভিকটিমকে হত্যা করে মরদেহ গুম করে ফেলবেন বলে হুমকি দেন।

Advertisement

তিনি আরো বলেন, এ ব্যাপারে ভিকটিমের পরিবার ঢাকার দক্ষিণখান থানায় কেয়া ও তার স্বামীকে আসামি করে নারী ও শিশু নির‌্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পরে ভিকটিমের পরিবারের দেওয়া তথ্যে আমরা অভিযানটি চালিয়ে শিশুকে উদ্ধার ও স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেফতার করি।

বিল্লাল উদ্দিন আরো বলেন, ভিকটিম শিশুকে পরিবারের কাছে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আসামিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট থানায় পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

সায়ীদ আলমগীর/এফএ/এমএস

Advertisement