রাজনীতি

‘খেলা সামনে’, বললেন আমীর খসরু

আগামী ২২ আগস্ট থেকে বিএনপির লাগাতার কর্মসূচির প্রেক্ষাপটে ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতি ‘খেলা সামনে’ বলে ইঙ্গিত করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

Advertisement

তিনি বলেছেন, মানুষ আজ অধিকার আদায়ের জন্য রাস্তায় নেমেছে। ২২ তারিখ থেকে ৯ দিন জনগণ রাস্তায় থাকবে। মাঠে থেকে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাকি সময়টুকু বিদায় করবে। জনস্রোত এখনো শুরু হয়নি। বাকি খেলা সামনে।

সরকার পতনের আন্দোলনে আগামী দিনে দলের শক্তি আরও কয়েকগুণ বাড়াতে হবে বলেও উল্লেখ করেন বিএনপির এ শীর্ষস্থানীয় নেতা। তিনি বলেন, আগামীতে যে আন্দোলন হবে, সেটি হবে শেখ হাসিনার পতনের আন্দোলন।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউরী মোড়ে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের বর্ণাঢ্য র‌্যালি শেষে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

Advertisement

জ্বালানি তেল, পরিবহন ভাড়াসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম ও ছাত্রদল নেতা নূরে আলম হত্যার প্রতিবাদে আগামী ২২ আগস্ট থেকে দেশের সব মহানগর, জেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ধারাবাহিকভাবে সভা-সমাবেশ ও মানববন্ধন করবে বিএনপি।

সরকার পতন না হওয়া পর্যন্ত দলের নেতাকর্মীদের মাঠে থাকার আহ্বান জানিয়ে আমীর খসরু বলেন, আওয়ামী লীগের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। তাই তারা আবোল-তাবোল বকছে। এগুলো গদি হারানোর লক্ষণ।

সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে চট্টগ্রামে মহাসমাবেশ হবে বলেও জানান বিএনপির এ নেতা।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, দুঃশাসন জারি রেখেই বর্তমান অবৈধ সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। এজন্যই তারা বিরোধীদলকে দমন-পীড়নের মাধ্যমে নিশ্চিহ্ন করার নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে। হত্যা, নির্বিচার গ্রেফতার, মিথ্যা মামলা সাজানোর জন্য পরিকল্পিত ঘটনা তৈরি করাই এখন সরকারের একমাত্র কাজ।

Advertisement

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলেও দেশের বাজারে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি) দাম না কমিয়ে পাঁচ বছর ধরে লাভ করেছে। এতে তাদের লাভ ছিল প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকা। সেই মুনাফার টাকা তারা কী করেছে? এর হিসাব দিতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচ এম রাশেদ খান বলেন, গণতন্ত্র, জনগণের ভোটাধিকার ও দেশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা বিএনপির ভ্যানগার্ড হিসেবে আন্দোলন-সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। অতীতের ন্যায় আগামীতেও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে স্বেচ্ছাসেবক দল রাজপথে আরও বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু বলেন, গুম, খুন, দুর্নীতি ও লুটপাট ছাড়া এ সরকারের জনগণকে দেওয়ার মত আর কিছুই নেই। প্রতিটি রন্ধ্রে রন্ধ্রে সরকারের ভয়াবহ দুর্নীতি দেশের অর্থনীতিকে পঙ্গু করে দিয়েছে।

সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন- চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি শওকত আজম খাজা, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি আসাদুজ্জামান দিদারসহ মহানগর বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা।

ইকবাল হোসেন/এমকেআর