আজকের জোকস : স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ওষুধ

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২২ এএম, ০২ নভেম্বর ২০১৯

স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ওষুধ
নাসিরুদ্দিন হোজ্জা একবার স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর জন্য এক হেকিমের কাছ থেকে ওষুধ নিয়েছিলেন। কয়েক মাস পর হোজ্জা তার হেকিমের কাছে গেলেন ওই ওষুধ আনার জন্য। এমন সময় হেকিম বললেন-
হেকিম: আচ্ছা, গতবার তোমাকে কী ওষুধ দিয়েছিলাম, একেবারেই মনে করতে পারছি না।
হোজ্জা: তাহলে ওই ওষুধ এখন থেকে আপনি নিজেই খাবেন।

****

চোরের হাতেকলমে শিক্ষা
চোরের ওস্তাদ তার শিষ্যকে হাতেকলমে শিক্ষা দিতে এক গৃহস্থবাড়িতে ঢুকেছে চুরি করতে। অনেক কায়দা করে ঘরে ঢুকে অন্ধকার কিছু একটার সঙ্গে ধাক্কা লেগে শব্দ হলো। গৃহস্থ ঘুমের ঘোরে বলে উঠলেন, ‘কে রে?’ ওস্তাদ চোর সঙ্গে সঙ্গে বিড়ালের গলা নকল করে ডেকে উঠল, ‘ম্যাঁও।’

গৃহস্থ বিড়াল ভেবে আবার চোখ বুজলেন। এরপর চ্যালা চোরের হাতে লেগে কী একটা পড়ে ঝনঝন শব্দ করে উঠল। গৃহস্থ আবার বললেন, ‘কে রে? কে ওখানে?’ চ্যালা চোর সঙ্গে সঙ্গে বুদ্ধি করে বলল, ‘হুজুর, আমিও বিড়াল।’

****

ছুটি কাটাতে গিয়ে প্রেম, অতঃপর...
এক লোক ছুটিতে বেড়াতে গেছে দূরের এক গ্রামে। সেখানে কয়েকদিন থাকার পর স্থানীয় এক মেয়ের প্রেমে পড়ে গেল। তাদের প্রেম বেশ ঘন হয়ে উঠেছে, এমন সময় তার ছুটি শেষ হয়ে গেল, শহরে ফিরে এলো।

কয়েক মাস পর আবার এক ছুটিতে সেই গ্রামে ফিরে গেল। প্রেমিকার খোঁজ নিতে গিয়ে দেখল, সে প্রেগন্যান্ট। প্রেমিকা জানালো, এ তারই ঔরসজাত শিশু।

আনন্দিত হয়ে লোকটি বলল, ‘তুমি আমাকে টেলিগ্রাম করলে না কেন? আমি সাথে সাথে এসে তোমাকে বিয়ে করে ফেলতাম!’ প্রেমিকা মাথা নাড়লো। বলল, ‘উঁহু। বাবা রাজি হলো না। বললো, পরিবারে একটা বেজন্মাই যথেষ্ট।’

এসইউ/এমএস