আজকের কৌতুক: ইভটিজিং রোধ করার উপায়

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪১ এএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

ইভটিজিং রোধ করার উপায়
রমিজ ও বন্ধু শান্তর মধ্যে ইভটিজিং নিয়ে কথা হচ্ছে—
শান্ত: জানিস, ইভটিজিং যে হারে বেড়ে গেছে, তাতে মেয়েদের বাইরে বের হওয়া দায় হয়ে গেছে।
রমিজ: হুম, ঠিকই বলেছিস।
শান্ত: এটা রোধ করার উপায় কী বল তো?
রমিজ: আমি একটা উপায় বের করেছি। এখন আমার মেয়েকে নিয়ে আমি নিশ্চিন্ত।
শান্ত: কী সেই উপায়?
রমিজ: আমার মেয়ের নাম রেখেছি ‘দিদি’। তাকে সবাই দিদি বলেই ডাকে। দিদিকে তো কেউ আর ইভটিজিং করবে না!

****

হেলিকপ্টার নিচে পড়ার কারণ
জিকু হেলিকপ্টার নিয়ে আকাশে উড়েছেন। চালক তিনি নিজেই। কিছুক্ষণ ওড়ার পর হেলিকপ্টারটি ধপাস করে নিচে পড়ে গেল। ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে গেলেন জিকু।

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সাংবাদিকরা ছুটে এলেন। জিকুকে জিজ্ঞাসা করলেন, ‘আচ্ছা, কী ঘটেছিল বলুন তো?’
‘ঘটনা তেমন কিছু নয়। উপরে খুব ঠান্ডা লাগছিল, তাই হেলিকপ্টারের ফ্যানের সুইচটি বন্ধ করে দিয়েছিলাম।’ জিকুর সহজ জবাব।

****

মজবুত আয়না চেনার উপায়
সুমন গেছেন আয়না কিনতে—
সুমন: ভাই, খুব শক্তিশালী আয়না দেখান তো?
দোকানদার: এই নিন। এটার দাম কিন্তু এক হাজার টাকা পড়বে।
সুমন: মজবুত হবে তো?
দোকানদার: হবে না মানে, আলবত হবে। আপনি আয়নাটি ১০০ তলার ওপর থেকে ফেলে দিলেও দেখবেন, এটি নিচের দিকের ৯৯ তলা পর্যন্ত ভাঙবে না।
সুমন: বলেন কী! এই আয়নাই তো আমার দরকার। ওটা প্যাকেট করে দিয়ে দিন।

এসইউ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]