‘৭ মার্চের ভাষণ জাতিকে এক কাতারে দাঁড় করিয়েছিল’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৮ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
‘৭ মার্চের ভাষণ জাতিকে এক কাতারে দাঁড় করিয়েছিল’

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণকে পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণ। এ ভাষণের মাধ্যমে তিনি বাঙালি জাতিকে এক কাতারে দাঁড় করিয়েছিলেন। নিরস্ত্র বাঙালিরা সশস্ত্র জাতিতে পরিণত হয়েছিল।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কোর মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) শনিবার অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য ঢাবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহ, ঢাবি এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ প্রমুখ।

মন্ত্রী বলেন, ২০ লাখেরও বেশি মানুষ সেদিন রেসকোর্স ময়দানে জড়ো হয়েছিল। সেদিন বঙ্গবন্ধু কোনো লিখিত বক্তব্য দেননি। তার মনের কথাগুলোই সেখানে উচ্চারিত হয়েছিল।

বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস তুলে ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সাধারণ মানুষের কল্যাণে আন্দোলন করতে গিয়ে তাকে বারবার কারাগারে যেতে হয়েছে। তিনি অত্যন্ত দূরদর্শী রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি ভেবে-চিন্তে কথা বলতেন এবং কখনও অন্যায়ের সঙ্গে আপস করতেন না।

ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’ হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় জাতি হিসেবে আমরা গর্বিত। এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় আমাদের স্বাধীনতার একটি ঐতিহাসিক দলিল সম্পর্কে জানার সুযোগ পেল।

এমএইচ/এমএমজেড/আরআইপি

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com