সামাজিক কাঠামো নারীকে অধীনস্ত করেছে পুরুষের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৩:০৮ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৩:১০ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশের সামাজিক কাঠামো নারীকে পুরুষের অধীনস্ত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়শা খানম।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

‘যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলো : নারী-পুরুষের সমতাভিত্তিক মানবিক সমাজ, রাষ্ট্র গঠন করো’ স্লোগানে নারীর প্রতি যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পোস্টার প্রদর্শনী ও আলোচনা সভার এ আয়োজন করে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের প্রোগ্রাম অফিসার আফরোজা আরমানের সঞ্চালনায় সভায় আরো বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ইনিস্টিউটের সহকারী অধ্যাপক তৌহিদুল হক, ইউএন উইমেনের বাংলাদেশ প্রতনিধি মাহতাবুল হাকিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী জোবায়ের মিয়াজী, জেন্ডার অ্যান্ড উইমেন স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী স্বর্ণা বসু প্রমুখ।

আয়শা খানম বলেন, পিতৃতান্ত্রিক মনোভাব নিয়ে নারী প্রতিরোধের আইন তৈরি হয়েছে। এজন্যই নারী একবার সহিংসতার শিকার হওয়ার পরে বিচার চাইতে গিয়ে আরও একবার নিপীড়নের শিকার হয়। ফলে নারীরা এখন নির্যাতনের শিকার হলেও ভয়ে বিচার চাইতে সাহস পায় না। নারী নির্যাতন বন্ধে রাষ্ট্রের উচিত নারী স্পর্শকাতর পুলিশ প্রশাসন ও বিচার বিভাগ তৈরি করা। পাশাপাশি প্রয়োজন দেশের সর্বস্তরের মানুষের সমন্বিত প্রচেষ্টা।

তৌহিদুল হক বলেন, আমাদের দেশে প্রতিনিয়ত নারী নির্যাতন, নিপীড়নের মতো ঘটনা ঘটছে। কিন্তু কোনো ঘটনার বিচার না হওয়ায় বিচারহীনতার সংস্কৃতি তৈরি হয়েছে। ফলে নারী সহিংসতা আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। পরিসংখ্যান দিয়ে নারী সহিংসতাকে মাপা ঠিক হবে না। এদেশে একজন নারীও যদি নির্যাতিত হয়ে বিচার না পান তাহলেও সেই দায় রাষ্ট্রকে নিতে হবে।

এমএইচ/জেডএ/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :