ঢাবি প্রশাসন ও ছাত্রলীগকে হুঁশিয়ার করলো সাংবাদিক সমিতি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৬:১৪ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গত দুই মাসে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে প্রশাসন ও ছাত্রলীগের উচ্ছৃঙ্খল নেতাকর্মী কর্তৃক হামলার শিকার হয়েছেন ১০ সাংবাদিক। এসব ঘটনায় ক্যাম্পাসে কর্মরত সাংবাদিকরা শঙ্কিত।

বৃহস্পতিবার প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। সাক্ষর করেন সমিতির সভাপতি আসিফ ত্বাসীন ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান নয়ন।

এসব ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনো সুষ্ঠু তদন্ত কিংবা শাস্তি নিশ্চিত না করায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ছাত্রলীগকে হুঁশিয়ার করেছে সংগঠনটি। দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা না নিলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করতে বাধ্য হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে গত দুই মাসে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ছাত্রলীগ কর্তৃক হামলার শিকার ১০ সাংবাদিকের নাম উল্লেখ করা হয়। এরা হলেন- গত ১৬ জানুয়ারি রাতে বকশীবাজার এলাকায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলার শিকার রেডিও টুডের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক নাজমুল হুদা, দৈনিক সংবাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক আবদুল্লাহ আল জুবায়ের এবং যমুনা টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন আবদুল লতিফ; গত ১৫ জানুয়ারি উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচিতে বাধা দেয়ার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে ছাত্রলীগ কর্তৃক হামলার শিকার ডেইলি স্টারের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক আশিক আবদুল্লাহ অপু ও আলোকিত বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক মামুন তুষার।

এছাড়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়মিত দেরি করে অফিসে আসার অভিযোগের তথ্য অনুসন্ধানে গিয়ে গত ১৭ ডিসেম্বর প্রশাসনিক ভবনের কর্মকর্তা কর্তৃক হামলার শিকার দৈনিক ইত্তেফাকের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি কবিরুল ইসলাম কানন; গত ২৮ নভেম্বর রাতে বিজয় একাত্তর হল ছাত্রলীগ কর্তৃক হামলার শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিডিনিউজটুয়েন্টিফোর ডটকমের স্টাফ রিপোর্টার মাসুম বিল্লাহ ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের একজন নারী সাংবাদিক; এবং গত ১২ নভেম্বর দর্শন বিভাগের কিছু উচ্ছৃঙ্খল শিক্ষার্থী কর্তৃক হামলার শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বণিক বার্তার স্টাফ রিপোর্টার সাইফ সুজন ও বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক কবির আবরার।

বলা হয়, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বারবার তাগিদ দেয়ার পরও কোনো ঘটনার সুষ্ঠু বিচার পাওয়া যায়নি। অভিযুক্ত ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধেও সংগঠন থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। প্রতিকূল পরিবেশে সাংবাদিকদের কাজ করতে হচ্ছে।

এসব ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা উদ্বিগ্ন ও শঙ্কিত। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উপরোক্ত কোনো ঘটনারও বিচার করেনি। আমরা লক্ষ্য করছি, কোনো কোনো ঘটনার ক্ষেত্রে তদন্ত কমিটি গঠনের নামে বিচার প্রক্রিয়াকে দীর্ঘায়িত করার কৌশল নেয়া হচ্ছে।

ছাত্রলীগও জড়িতদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বরং এর আগে একাধিক সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় বহিষ্কৃতদের নতুন করে পদায়ন করা হয়েছে। এসব কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রত্যাশিত কাজের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এমতাবস্থায় দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা না নিলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

এমএইচ/এমআরএম/আইআই

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :