বেরোবির ক্যাম্পাসে পুষ্পের সৌরভ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বেরোবি
প্রকাশিত: ১০:২০ এএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

কুয়াশার চাদরে মোড়ানো পুষ্পশোভিত অপরূপ ক্যাম্পাস উত্তরবঙ্গের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি)। শিশির বিন্দুতে পা ভিজিয়ে ক্লাস-পরীক্ষায় বসেন এ ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা। এ ক্যাম্পাসে হাঁটলেই উঁকি দেবে রং-বেরঙের বাহারি ফুল। এ ফুলে খেলা করে লাল-নীল রঙয়ের প্রজাপতি। সুগন্ধি ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে।

মায়াবী এই বিদ্যাপীঠকে সবুজ পত্রপল্লব দিয়ে সারা বছর সাজিয়ে রাখে ফুল, ফল, ঔষধিসহ বিভিন্ন জাতের বাহারি সব গাছপালা। ক্যাম্পাসের সবুজায়ন ও সৌন্দর্য বর্ধনে চলছে প্রশাসনের নানা উদ্যোগ। সম্প্রতি ভবনগুলোর সামনে লাগানো হয়েছে নয়নাভিরাম ফুলের বাগান। যা উঁচু ভবন থেকে দেখলে মনে হবে যেন এক টুকরো মাটিতে ফুলের গালিচা বিছানো হয়েছে।

BRUR-Campus

শীতের স্বর্ণরাঙা রোদের কিরণ ফুলের গায়ে পড়তেই চারদিকে তার আভা ছড়িয়ে পড়ছে। গাছের পাতার ভাঁজে ভাঁজে হেসে উঠছে সবুজ প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য। ফুলের সুবাসে ক্লাসের ফাঁকে জমছে শিক্ষার্থীদের আড্ডা, দুষ্টমি আর খুনসুটি।

ভবনগুলোর সামনে লাগানো এসব বাগানে মুগ্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসা অতিথিরাও। ক্যাম্পাসে প্রজাপতির সঙ্গে যেন মেলা বসে ফুল প্রেমীদেরও।

শীতের অলস সকাল-বিকেলে আড্ডা জমে ক্যাফেটরিয়া, অ্যাকাডেমিক ভবন এবং প্রশাসনিক ভবনের এ বাগান ঘিরে। চলে ফটোসেশন ও সেলফি তোলার প্রতিযোগিতাও।

BRUR-Campus

ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক চতুর্থ বর্ষে অধ্যয়ণরত শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, লাল ইটের এ ক্যাম্পাসটিতে যোগ হওয়া ফুলের বাগান ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিচ্ছে বহুগুণে।

ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের স্নাতকোত্তরে অধ্যয়ণরত শিক্ষার্থী সুলতান মাহমুদ জাগো নিউজকে বলেন, ২০১২ সালে যখন ভর্তি হই তখনো ক্যাম্পাস ছিল প্রায় গাছপালা শূন্য। ক্যাম্পাসের বয়স বাড়ার সাথেই বেড়ে চলছে এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। এক সময় বৃক্ষরাজিতে ভরপুর হবে এ ক্যাম্পাস। তখন আমরা আর থাকব না।

সজীব হোসাইন/এফএ/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com