বাকৃবিতে ‘জাতিসংঘে বাংলা চাই’ অনলাইন আবেদনের উদ্বোধন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:৪৮ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা বাংলা করার দাবিতে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) শোভাযাত্রা ও অনলাইন আবেদন শুরু হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল চারটার দিকে অনলাইন আবেদনের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী।

প্রাণ গ্রুপের সহযোগিতায় ও জাগোনিউজ২৪.কম-এর আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনলাইন আবেদন কার্যক্রম উদ্বোধনের পর বাকৃবি সাংবাদিক সমিতির কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।

পরে সমিতির কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উদ্বোধনের পর সমিতির কার্যালয়ের বাইরে অনলাইনে আবেদনের জন্য রেজিস্ট্রেশন বুথ খোলা হয়।

bangla

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তরুণ শিক্ষার্থীরা ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় অনলাইন আবেদনে (www.jagonews24.com/MakeBanglaOfficial) অংশ নেয়। এর পূর্বে প্রচারণার অংশ হিসেবে পুরো ক্যাম্পাসে পোস্টারিং করা হয়।

সাংবাদিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন অ্যাকুয়াকালচার বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল হক, বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা অধিদফতরের উপ-পরিচালক দীন মোহাম্মদ দীনু।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত জাতীয় ও দৈনিক পত্রিকার প্রতিনিধিরা, ক্যাম্পাসে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

bangla

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাজিব মুবিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জাগোনিউজ২৪.কম-এর বাকৃবি প্রতিনিধি মো. শাহীন সরদার।

আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা বলেন, আমাদের অনেক আগেই এ রকম উদ্যোগ নেয়া উচিৎ ছিল। বাংলা ভাষাকে সব ক্ষেত্রে ব্যবহার করে জাতিসংঘকে বাংলা ভাষার মর্যাদা বুঝিয়ে দিতে হবে।

অ্যাকুয়াকালচার বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল হক বলেন, দেশের সব স্তরে বাংলা ভাষার সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের গবেষণার বিষয়গুলোকে বেশি বেশি বাংলায় প্রচার করতে হবে যেন বিশ্বে বাংলার মর্যাদা আরও বৃদ্ধি পায় এবং আশা করছি খুব দ্রুত জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা বাংলা হিসেবে স্বীকৃত হবে।

জনসংযোগ ও প্রকাশনা অধিদফতরের উপ-পরিচালক দীন মোহাম্মদ দীনু বলেন, বাঙালি জাতিই একমাত্র জাতি যারা বাংলা ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছিল। তাই জাতিসংঘে বাংলা ভাষার দাপ্তরিক হওয়া আমাদের প্রাপ্য। খুব শিগগিরই শুভ সংবাদটি পাব বলে আশা করছি।

bangla

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের (বাসদ খালেকুজ্জামান) সভাপতি সৌরভ দাস বলেন, বাংলা নিয়ে গবেষণা বাড়াতে হবে। এ সময় তিনি ভাষা শহীদদের স্মরণ করে ইতিহাস তুলে ধরেন।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট (মার্কসবাদী) সাংগাঠনিক সম্পাদক প্রেমানন্দ দাশ বলেন, উচ্চশিক্ষায় বাংলার ব্যবহার প্রচলন করতে হবে। তবেই গবেষণাসহ অন্যান্য বিষয়ে বিশ্বে বাংলা ভাষার মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে।

দৈনিক কালের কণ্ঠের প্রতিনিধি আবুল বাশার মিরাজ বলেন, বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের ভার পৃথিবীর অনেক ভাষা থেকেই প্রাচীনতম এবং সমৃদ্ধ। এ কারণে জাতিসংঘের ৭ম দাপ্তরিক ভাষা হোক বাংলা এ দাবি জানাই।

বিতর্ক সংঘের যুগ্ম সম্পাদক মেহেদী হাসান রাতুল বলেন, এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা বাংলা করতে নিজেরা অনলাইনে ভোটের পাশাপাশি আশপাশের সবাইকে অনুপ্রাণিত করব কারণ এটি আমাদের সবারই প্রাণের দাবি।

চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আব্দুল বাশির বলেন, ভাষার মাসে জাগো নিউজের এমন অয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। এটা আমাদেরও প্রাণের দাবি। এমন একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে খুবই ভালো লাগছে।

মো.শাহীন সরদার/এমএএস/আইআই/এমআরএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :