শেকৃবিতে বাড়ছে বিদেশি শিক্ষার্থীদের আনাগোনা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৪:৩২ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৮

সাম্প্রতিক সময়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয় পর্যায়েই উচ্চ শিক্ষা অর্জনের লক্ষ্যে প্রচুর বিদেশি শিক্ষার্থী ভিড় করছে রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি)। বর্তমানে ১৩ জন মেয়েসহ স্নাতক পর্যায়ে সর্বমোট প্রায় ৩৬ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন, যাদের সকলেই নেপালি শিক্ষার্থী। স্নাতকোত্তর পর্যায়েও বেশ কিছু ভারতীয়সহ বিদেশি শিক্ষার্থীরা অধ্যয়ন করছেন।

২০১৬ সালে নয়জন শিক্ষার্থীর ভর্তির মধ্য দিয়ে স্নাতক পর্যায়ে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে আনাগোনা শুরু হয়।

নেপাল মূলত একটি আমদানি ও পর্যটন শিল্পভিত্তিক দেশ। এদেশে পর্যাপ্ত সংখ্যক মানসম্মত বিশ্ববিদ্যালয় না থাকায় অনেকেই বিদেশি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের লক্ষ্যে পাড়ি জমাচ্ছেন। বাংলাদেশে পড়াশোনার ক্ষেত্রে তাদের আগ্রহ দিনের পর দিন বাড়ছে। এর অন্যতম কারণ বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক স্কলারশিপ প্রদান, পড়াশোনার তুলনামূলক স্বল্প ব্যয় ও শিক্ষাব্যবস্থার মান প্রভৃতি।

sau1

ভাষা, সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস প্রভৃতি ব্যাপারে বেশ কিছু পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও তারা স্বাচ্ছন্দ্যে এদেশের পরিবেশের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিতে পারছেন। শেকৃবিকে পছন্দের তালিকার শীর্ষে রাখার অন্যতম কারণ বিশ্ববিদ্যালয়টির অবস্থান রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে। যোগাযোগ ব্যবস্থাও ভালো, নিরাপত্তার দিক দিয়েও নির্ভরযোগ্য।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ তাদের সকল সমস্যা প্রশাসনকে জানানো সাপেক্ষে সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন।

ওমসাগর শাহ নামক এক বিদেশি শিক্ষার্থী জাগো নিউজকে জানান, আমাদের পরিচিত অনেক নেপালি বড় ভাইয়েরা বাংলাদেশে পড়াশোনা করে। তাদের মাধ্যমেই শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে জানতে পারি এবং ভর্তি হওয়ার আগ্রহ জাগে। এখানকার শিক্ষক, শিক্ষার্থী সকলেই বন্ধুসুলভ আচরণ করে। সর্বোপরি আমরা এই ক্যাম্পাসে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যেই পড়াশোনার সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছি।

এমবিআর/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :