বঙ্গবন্ধু ছিলেন গণমানুষের কালোত্তীর্ণ নেতা : অধ্যাপক শামসুজ্জামান

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেছেন, অসাধারণ প্রতিভা ও বিশাল ব্যক্তিত্বের অধিকারী ছিলেন বলেই বঙ্গবন্ধু গণমানুষের কালোত্তীর্ণ নেতা। তিনি রাজনীতি ও সরকার পরিচালনার পাশাপাশি ৫টি গ্রন্থ রচনা করেছেন। ইতোমধ্যে তার ৩টি গ্রন্থ মুদ্রিত হয়েছে। বাকি ২টি গ্রন্থ পাণ্ডুলিপি আকারে আছে, শিগগিরই ছাপার কাজ শুরু হবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ‘বঙ্গবন্ধু: স্মৃতিতে অবিনশ্বর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু বাঙালির হাজার বছরের স্বাধীনতার স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করেছেন। এ কারণে তিনি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালির সম্মান অর্জন করেছেন বলেও জানান অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান।

রাজনীতিবিদ, গবেষক ও লেখক মোনায়েম সরকার বলেন, এখন রাস্তায় তাকালে সর্বত্র বঙ্গবন্ধুর ছবি দেখা যায়। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর তাকে নিয়ে কথা বলার মতো লোক ছিল না। তখন আমরা বঙ্গবন্ধু পরিষদ গঠন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুকে বাঙালির মনে পড়ে। বাঙালি বঙ্গবন্ধুকে মনে করে। বাঙালির মুক্তি ও স্বাধীনতায় বঙ্গবন্ধুর অবদানের জন্য তাকে মনে করতেই হবে। বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু তার কীর্তির জন্যই বাঙালির মনে সাহসের প্রতীক হয়ে চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ আলোচক হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন- প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হক ফাউন্ডেশনের কর্ণধার অ্যাডভোকেট আফিয়া বেগম।

হাফিজুর রহমান/এএম/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]