আ.লীগ নেতাকে মারধর করায় ঢাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৯ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) এলাকায় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃতরা হলেন- শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হামজা ও সলিমুল্লাহ মুসলিম (এস এম) হল ছাত্রলীগের স্কুল ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হাসান ঝণ্টু।

রোববার রাতে এ মারধরের ঘটনা ঘটে। আর ভুক্তভোগী হলেন- মুন্সিগঞ্জের সিরজাদিখান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শহীদুর রব (পেনু)। লোহার পাইপের আঘাতে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হলে মাথায় ৮টি সেলাই দেয়া হয়।

ভুক্তভোগী জানান, আমির হামজা তার দোকানে কিছু ওষুধ কিনতে আসেন। ওই ওষুধগুলো তার দোকানে ছিল না। তখন ছাত্রলীগের ওই নেতা অন্য জায়গা থেকে ওষুধগুলো নিয়ে আসতে বলে। দোকান কর্মচারী শুভ তা আনতে অপরাগতা প্রকাশ করলে তিনি ক্ষেপে যান। একপর্যায়ে মাথায় লোহার পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে। তাকে ফেরাতে গেলে দোকান মালিককেও সে লাঞ্ছিত করে। 

তবে ছাত্রলীগ নেতা আমির হামজার দাবি, সে ওষুধ কিনতে গেলে ওই দোকান কর্মচারী মাকে নিয়ে গালি দিলে তার সঙ্গে হাতাহাতি হয়।

এদিকে, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই ছাত্রলীগ নেতাকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

বলা হয়, সংগঠনের গতিশীলতা ও গঠনতান্ত্রিকতার স্বার্থে শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হামজা ও সলিমুল্লাহ মুসলিম (এস এম) হল ছাত্রলীগের স্কুল ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হাসান ঝণ্টুকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এমএইচ/এমআরএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :