শিক্ষককে মারধর করায় উপ-রেজিস্ট্রার বরখাস্ত

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৬:২৭ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক জ্যেষ্ঠ শিক্ষককে মারধর করায় উপ-রেজিস্ট্রার মানজারে আলম মিরুকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

মারধরের শিকার শিক্ষকের নাম অধ্যাপক এমতাজ হোসেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক ও জিয়া পরিষদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব।

এ ঘটনায় উপ-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এসএম আব্দুল লতিফ। একই ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে বিশ্ববিদ্যালয় থানায় একটি মামলা করেছেন অধ্যাপক এমতাজ হোসেন।

রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, জিয়া পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার অনুমোদন নিতে বুধবার বিকেলে অধ্যাপক এমতাজের বিশ্ববিদ্যালয়ের ডরমেটরির বাসায় যান উপ-রেজিস্ট্রার মানজারে আলম। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হলে উত্তেজিত হয়ে ওই শিক্ষককে মারধর করেন মানজারে আলম।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মানজারে আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনর। একই সঙ্গে তার বিরুদ্ধে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

কমিটিতে ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সভাপতি নবনির্বাচিত শিক্ষক সমিতির সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিনকে আহ্বায়ক করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- জিয়া পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইদ্রিস আলী এবং কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ বকুল।

এ ঘটনায় ওই শিক্ষক বাদী হয়ে মামলা করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ। তিনি বলেন, মামলায় মানজারে আলম মিরুর নাম উল্লেখ করে আরও দুই ব্যক্তিকে অজ্ঞাত আসামি হয়েছে।

ফেরদাউসুর রহমান সোহাগ/এএম/এমকেএইচ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :