দেয়া নেয়ার মেলবন্ধন ‘মানবতার দেয়াল’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৯ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

দেয়ালের নাম রাখা হয়েছে ‘মানবতার দেয়াল’। তার এক পাশে লেখা, ‘আপনার অপ্রয়োজনীয় কাপড়-চোপড় এখানে রেখে যান’ এবং অন্য পাশে, ‘আপনার প্রয়োজনীয় কাপড়-চোপড় নিয়ে যান’। দেয়ালের নিচে লেখা, ‘দিতে নয় কার্পণ্য, নিতে নয় লজ্জা’।

শীতের কথা মাথায় রেখে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় গেটের বাম দিকের দেয়াল ব্যবহার করে এভাবেই কাপড় সংগ্রহের একটি মহৎ উদ্যোগ নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া পাঁচ বন্ধু। যেখানে একজন তার অপ্রয়োজনীয় কাপড় রেখে যাচ্ছেন, আর কারও দরকার হলে সেই কাপড়টি বিনামূল্যে কেউ নিয়ে যেতে পারছেন।

Manobota

উদ্যোগটি এখন বিশ্ববিদ্যালয়সহ রংপুর শহরে সাড়া জাগিয়েছে। উদ্যোক্তাদের একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম ব্যাচের ফাইন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের মো. সোহরাব হোসেন জাগো নিউজকে জানান, শীতে রংপুরের মানুষগুলো একটু বেশিই কষ্ট পান। তাদের কষ্ট লাঘবে এই ক্ষুদ্র চেষ্টা। অনেকের কাছে অপ্রয়োজনীয় কাপড় থাকলেও সরাসরি বিতরণ করতে পারছেন না। অন্যদিকে শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকে কষ্ট পাচ্ছেন। এ দুয়ের মেলবন্ধন করে দিচ্ছে মানবতার দেয়াল।

মানবতার দেয়ালের উদ্যোক্তা ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মতিউল্লাহ মেজবাহ নাবিল বলেন, অনেকেই শীতের কষ্ট থেকেও লজ্জায় কারও কাছ থেকে চাইতে পারছেন না। তারা এ দেয়াল থেকে সহজেই প্রয়োজনীয় কাপড় সংগ্রহ করতে পারছেন। একই বিভাগের আরেকজন উদ্যোক্তা মো. রফিকুল ইসলাম খান বলেন, এই কার্যক্রম শুধু সুবিধাবঞ্চিত মানুষের হাতে শীতবস্ত্র পৌঁছে দেয়া নয়, বরং ভালোবাসার উষ্ণতা ছড়িয়ে দেয়া।

Manobota

অন্য দুই উদ্যোক্তা হলেন, ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. আবুল বাসার রনি এবং অর্থনীতি বিভাগের ছমিরন সরকার। মানবিক কাজে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তারা বলেন, সবাই যদি এভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেই তবে সব প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা বড় কোনো সংকট মোকাবিলা করা সম্ভব।

অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক উমর ফারুক বলেন, মানবতার দেয়াল নামে শিক্ষার্থীদের এটি সত্যি অন্যন্য উদ্যোগ। আমাদের সবার উচিত এ উদ্যোগের পাশে থেকে শীতার্ত মানুষদের কষ্ট লাঘব করা।

সজীব/এমএএস/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :